মানবদেহে করোনা ভ্যাকসিন পরীক্ষার অনুমতি পেল ভারত বায়োটেক

করোনা ভাইরাসের ভয়াল থাবায় বিপর্যস্ত মানবজাতি এখন উন্মুখ হয়ে চেয়ে আছে একটা ভ্যাকসিন বা প্রতিষেধকের। আপেক্ষায় আছেন কখন একটা সুখবর দেবেন বিজ্ঞানীরা। বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ভ্যাকসিন তৈরির কাজ চলছে জোর কদমে। সেই দৌড়ে পিছিয়ে নেই ভারতও। এবার ভারত বায়োটেককে তাদের তৈরি করোনার সম্ভাব্য ভ্যাকসিন ‘কোভ্যাক্সিন’ মানবদেহে পরীক্ষা চালানোর অনুমতি দিয়েছে ভারতের কেন্দ্রীয় ওষুধ নিয়ন্ত্রক সংস্থা সেন্ট্রাল ড্রাগস স্ট্যান্ডার্ড কন্ট্রোল অর্গানাইজেশন।

মঙ্গলবার সংস্থার পক্ষ থেকে জানান হয় যে, ভারতে এই প্রথম মানবদেহে ভ্যাকসিনের ট্রায়াল করা হবে। জুলাই মাস থেকেই শুরু হবে এই প্রক্রিয়া। ভারতের ড্রাগ কন্ট্রোল জেনারেল ডা. ভি জি সোমানি এই অনুমতি দিয়েছেন। জুলাই মাস থেকেই মানব শরীরে এই কোভ্যাক্সিন প্রয়োগের প্রথম পর্যায় শুরু হবে। ফলাফল আশানুরূপ আসতে শুরু করলে দ্রুতই দ্বিতীয় পর্যায়ও শুরু করা হবে বলেই জানান হয়েছে।

ভারত বায়োটেক ইন্ডিয়া এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, প্রথমে এই ভ্যাকসিনটির সুরক্ষা এবং রোগ প্রতিরোধ কীভাবে করছে তা বিস্তারিতভাবে দেখা হয়। প্রি-ক্লিনিকাল পর্যায়ে এই ভ্যাকসিনের কার্যকারীতাও দেখা হয়েছে। এরপর সব দিকের সাফল্য দেখেই এই অনুমতি দেওয়া হয়েছে।ভারত বায়োটেকের চেয়ারম্যান এবং ম্যানেজিং ডিরেক্টর ডা. কৃষ্ণা এল্লা বলেন, ‘আইসিএমআর এবং এনআইভির সহযোগিতা এই ভ্যাকসিন তৈরিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে। সিডিএসসিওর সক্রিয় সমর্থন এবং সহায়তা এই প্রকল্পের অনুমোদন পাওয়ার ক্ষেত্রে সাহায্য করেছে।’

প্রসঙ্গত, ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অফ মেডিকেল রিসার্চ (আইসিএমআর)-এর ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ ভাইরোলজির সঙ্গে যৌথভাবে এই ভ্যাকসিন তৈরি করেছে ভারত বায়োটেক।

সূত্র- ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস।