গরিব-দুঃখীদের সাহায্য জন্য অ্যাম্বুলেন্স দান করলেন সাকিব আল হাসান

সমাজের পিছিয়ে পড়া মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। করোনায় আক্রা’ন্ত হয়ে মৃ’ত ব্যক্তিদের দাফ’নের কাজ করে যাচ্ছে মাস্তুল ফাউন্ডেশন। এ কাজের জন্য তারা নিজেদের অর্থ খরচ করে ভাড়ায় নেয়া অ্যাম্বুলেন্স ব্যবহার করছে। এটি জানতে পেরে মাস্তুল ফাউন্ডেশনের পাশে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক সাকিব আল হাসানের ফাউন্ডেশন।

সাকিবের সরাসরি তত্ত্বাবধানে মাস্তুল ফাউন্ডেশনকে দেয়া হয়েছে একটি অ্যাম্বুলেন্স। যা ব্যবহার করা হবে করোনায় মৃ’তদের দা’ফনের কাজে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সাকিব আল হাসান জানান, “জনপ্রিয় অনলাইন ফান্ডরাইজিং ক্যাম্পেইন “অকশন ফর একশন” আমন্ত্রন জানায় মাস্তুল ফাউন্ডেশনকে তাদের কোভিড ১৯ দু’র্যোগ পরিস্থতিতে তাদের কাজ সম্পর্কে বিস্তারিত জানানোর জন্য। প্রতিষ্ঠাতা কাজী রিয়াজ রহমান জানান, বর্তমানে তাঁরা কোভিড ১৯ আক্রা’ন্ত রোগিদের ১৯ করোনাতে মৃ’ত ব্যাক্তিদের দা’ফন কার্যক্রমও সম্পন্ন করেছে এবং এটি তাঁরা নিজেদের টাকায় এ্যাম্বুলেন্স ভাড়া করে চালাচ্ছে, যা তাদের জন্য অনেক ক’ষ্টসাধ্য হয়ে পড়ছিলো।

সে আরো জানায় তাদের একটি নিজস্ব এ্যাম্বুলেন্স হলে করোনাতে আক্রা’ন্ত ও মৃ’ত ব্যাক্তিদের দা’ফন কাজে সহযোগিতা করতে পারবে। এটি, সাকিব আল হাসান ফাউন্ডেশনের প্রধান উপদেষ্টা ব্যারিস্টার চিশতি ইকবাল এটিকে সাকিব আল হাসানের নজরে এনেছিলেন, যিনি অতি দ্রুত সিদ্ধান্ত নেন সাকিব আল হাসান ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে মাস্তুল ফাউন্ডেশনকে সহায়তা করার। মাস্তুল ফাউন্ডেশন বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক রেজিস্টার্ড সামাজিক প্রতিষ্ঠান। মাস্তুলের রয়েছে নিজস্ব স্কুল এবং এর বাহিরে ২২ টি স্কুলে, ১২ জেলায় ১১০০ সুবিধাবঞ্চিত গরিব শিক্ষার্থীদের স্কুল ব্যাগ, জুতা, মুজা, বই, খাতা সহ সকল শিক্ষার উপকরন দিয়ে সহযোগিতা করে আসছে।

এর পাশাপাশি স্বাস্থ্য, পুষ্টিকর খাবার, শিশু অধিকার, মৌলিক চাহিদা নিশ্চয়তা করা হচ্ছে। মাস্তুল রয়েছে পিতামাতাহীন/অনাথ/এয়াতিম বাচ্চাদের জন্য “মাস্তুল শেল্টার হোম” এখানে প্রায় ২১ জন বাচ্চা রয়েছে। মাস্তুলের রয়েছে শেলাই প্রশিক্ষন কেন্দ্র, যার মাধ্যমে সুবিধাবঞ্চিত নারীদের কর্মক্ষম করে তোলা হচ্ছে। এর বাহিরে স্বাবলম্বী প্রজেক্টের মাধ্যমে ৭০ জনকে স্বাবলম্বী করে তোলা হয়েছে। মাস্তুল ফাউন্ডেশন থেকে মৃ’ত ব্যাক্তিদের জানাজা, দা’ফন কা’ফন কার্যক্রম ও সৎকার করা হয়ে থাকে।

এই কোভিড ১৯ করোনা দুর্যো’গে মাস্তুল থেকে করোনাতে আ’ক্রান্ত মৃ’তদের দাফ’ন কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে। মাস্তুলের রয়েছে অসহায় ও গরিবদের জন্য ফ্রী এ্যাম্বুলেন্স সার্ভিস ও স্বাস্থ্য সেবা। সাকিব আল হাসান ফাউন্ডেশন এবং মাস্তুল ফাউন্ডেশন একত্রে সিদ্ধান্ত নেই যে যত দ্রুত সম্ভব এম্বুল্যান্স সেবা দিয়ে করোনা আক্রা’ন্ত রোগীদের সেবায় নিয়োজিত হওয়া যায়। আলহামদুলিল্লাহ আমরা আপনাদের সামনে আমাদের এই সেবা নিয়ে হাজির হয়েছি।

চাইলে দেশের এই ক্রান্তিল’গ্নে আপনিও মাস্তুল ফাউন্ডেশনের এই সেবায় সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিতে পারেন। দাফনের কাপড়, পিপিই, অক্সিজেন সিলিন্ডার, মাস্ক, গ্লাভস দিয়ে এগিয়ে এসে আপনিও আমাদের সাথে দেশের এই দু’র্যোগে সমাজের পাশে দাড়াতে পারেন।