করোনা নেগেটিভ সার্টিফিকেট লাগবে বিদেশগামী সব বাংলাদেশি নাগরিকের

বাংলাদেশ থেকে বিদেশযাত্রী সব নাগরিককে এখন থেকে করোনাভাই’রাস নেগেটিভ সার্টিফিকেট সঙ্গে নিয়ে যেতে হবে জানিয়ে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রী এ. কে. আব্দুল মোমেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হওয়া একটি বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়, যেখানে স্বাস্থ্য মন্ত্রী ওপ্রবাসী কল্যাণ ও কর্মসংস্থান মন্ত্রীও উপস্থিত ছিলেন।

কেন এই সিদ্ধান্ত নেয়া হলো, তার কারণ হিসেবে পররাষ্ট্র মন্ত্রী এ কে আবদুল মোনেম বিবিসিকে জানান, “কোনো কোনো দেশ এরকম নির্দেশনা দিয়েছে যে, তাদের দেশে প্রবেশ করতে করোনাভাই’রাস নেগেটিভ সার্টিফিকেট লাগবে। সেই বিবেচনায় এই সিদ্ধান্ত নিয়েছি আমরা।” তবে সম্প্রতি ইতালি থেকে বাংলাদেশিদের ফেরত পাঠানোর ঘটনার সাথে এই সিদ্ধান্তের কোনো সম্পর্ক নেই বলে জানান মি. মোমেন।

তিনি বলেন, “ইতালিতে যাওয়া যাত্রীদের কোনো করোনভাই’রাস পরীক্ষার ফলাফল জানতে চাওয়া হয়নি। বাংলাদেশ থেকে ফ্লাইট যাওয়ায় নিষে’ধাজ্ঞা থাকার মধ্যেও যাওয়ার ফলে তাদের ফেরত পাঠানো হয়েছে। তাদের ফেরত পাঠানোর সাথে করোনাভাই’রাস পরীক্ষার ফলের কোনো সম্পর্ক নেই।” বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয় শুধুমাত্র সরকার অনুমোদিত টেস্টিং সেন্টার থেকেই করোনাভাই’রাস পরীক্ষার সার্টিফিকেট গ্রহণযোগ্য হবে।

কর্মসংস্থানের জন্য বিদেশে গমনকারীদের করোনা পরীক্ষার সুবিধার জন্য প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের অধীনে একটি নিবেদিত করোনা টেস্টিং সেন্টার স্থাপনেরও সিদ্ধান্ত নেয়া হয় ঐ বৈঠকে। করোনাভাই’রাস নেগেটিভ সার্টিফিকেট থাকার পরও ঢাকা থেকে পৌঁছানোর পর পজিটিভ হওয়ার পর জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া ও চীন ঢাকার সাথে বিমান যোগাযোগ বন্ধ করে দেয়।

সূত্র: বিবিসি বাংলা।