বেশি করে আনারস খান, রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ান

স্বাস্থ্য ও জীবনধারাবিষয়ক ওয়েবসাইট বোল্ডস্কাইয়ের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী অনেকেই সুষম খাবার গ্রহণ ও শরীরচর্চার মাধ্যমে নিজেদের ইমিউন সিস্টেমকে শক্তিশালী করার চেষ্টা করছেন। খাবারের মধ্যে হয়তো নিয়মিত রাখছেন বিভিন্ন ধরনের ফলও। এ সময়ে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে খেতে পারেন আনারস। ফ্ল্যাভো’নয়েড থাকায় আনারস পুষ্টিগুণে ভরপুর। পুষ্টিবিদদের মতে, সহজলভ্য এই আনারসে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে রোগ প্রতিরোধী অ্যা’ন্টিঅক্সি’ডেন্ট, যা শরীর ফিট ও সুস্থ রাখতে সাহায্য করে।

এ ছাড়া ফাইবার, ভিটা’মিন সি, পটাশি’য়াম, ফোলেট, ম্যাগনে’সিয়াম, ম্যাঙ্গা’নিজ ইত্যাদিতে ভরপুর এই ফল। জেনে নিন আনারসের অন্যান্য স্বাস্থ্য উপকারিতা সম্পর্কে। রোজ কতটা খাওয়া যেতে পারে? একজন সুস্থ-স্বাভাবিক ব্যক্তি প্রতিদিন ৮ থেকে ১০ টুকরো আনারস খেতে পারেন। কখনো একটা পুরো আনারস একা খাবেন না। এই ফল খাওয়ার ক্ষেত্রে কখনো রস বের করে খাবেন না। কারণ, রস বের করে খেলে ফাইবারের পরিমাণ অনেকটাই কমে যায়। তাই টুকরো করে খান।

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে: আনারস বহু শতাব্দী ধরে ওষুধের একটি অংশ হিসেবে ব্যবহৃত হয়ে আসছে। এতে রয়েছে ভিটা’মিন, খনিজ ও এনজা’ইম, যা সম্মিলিতভাবে অনাক্রম্যতা বাড়িয়ে তুলতে এবং প্রদাহ দমন করতে সাহায্য করে। একটি গবেষণায় দেখা গেছে, যাঁরা নিয়মমাফিক আনারস খান, তাঁদের ভাই’রাস বা ব্যাক’টেরিয়া দ্বারা সংক্র’মণের ঝুঁ’কি অনেকটাই কম।

ওজন নিয়ন্ত্রণে: আনারসে থাকে প্রচুর ফাইবার এবং ফ্যাটের পরিমাণ অনেকটাই কম, যা শরীরের ওজনকে নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করে। তাই এই লো-ক্যা’লরিযুক্ত ফল রোজ আপনার ডায়েটে রাখুন।

হাড় গঠনে: আনারসে রয়েছে প্রচুর ক্যাল’সিয়াম ও ম্যাঙ্গা’নিজ। এ দুই উপাদান হাড়কে শক্ত করতে এবং হাড়ের গঠনে সাহায্য করে। পাশাপাশি দাঁতের সুরক্ষায়ও কার্যকর ভূমিকা পালন করে আনারস।

হজম ক্ষমতা বাড়ায়: আনারসে রয়েছে অনেকগুলো ডাইজেসটিভ এন’জাইম, যা ব্রোমে’লেইন নামে পরিচিত। এই ব্রোমেলেইন বদহজম বা হজমজনিত যেকোনো সমস্যা থেকে মুক্তি দিতে সাহায্য করে। এতে থাকে প্রচুর পানি ও আঁশ, যা কো’ষ্ঠকা’ঠিন্য দূর করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

চোখের স্বাস্থ্য ঠিক রাখতে: বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গেছে, আনারসে থাকে বিটা ক্যা’রোটিন, যা চোখের রেটিনা ঠিক রাখতে সাহায্য করে। চোখের ম্যাকু’লার ডিজেনারেশন রোগ হওয়া থেকে চোখকে রক্ষা করে। এই ম্যাকু’লার ডিজেনারেশন চোখের রেটিনাকে ন’ষ্ট করে অন্ধত্বের দিকে ঠেলে দেয়। রোজ আনারস খেলে এই রোগ থেকে মুক্তি পাওয়ার সম্ভাবনা ৭০ শতাংশ বেড়ে যায়।

এ ছাড়া ব্র’ণ ও ত্বকের যেকোনো সমস্যা দূর করতে, তারুণ্য ধরে রাখতে এবং আর্থ্রা’ইটিসের লক্ষণগুলো দূর করতে খুবই সহায়ক আনারস। এখন আনারসের মৌসুম। তো, আর অপেক্ষা কেন?

সূত্র: এনটিভিবিডি