আমি এখন বুঝছি কেন অধিনায়করা ম্যাচ চলাকালীন ঘুমাতে পারেনা : স্টোকস

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে প্রথম টেস্টে ইংল্যান্ডকে নেতৃত্ব দিয়েছেন অলরাউন্ডার বেন স্টোকস। ক্যারিয়ারের প্রথম অধিনায়কত্বে পেয়েছেন হারের তিক্ত স্বাদ। এই অলরাউন্ডার এখন বুঝতে পারছেন, কেন অধিনায়ককে ঘুমহীন রাত কাটাতে হয়! দীর্ঘ বিরতি কাটিয়ে ক্রিকেটের ফেরার ম্যাচে ছিলেন না ইংলিশদের নিয়মিত অধিনায়ক জো রুট। পিতৃকালীন ছুটিতে থাকায় তার পরিবর্তে দলকে নেতৃত্ব দেন স্টোকস। ব্যাটে-বলে নিজের দায়িত্ব সামলেছেন ঠিকই।

ব্যাট হাতে দুই ইনিংস মিলিয়ে ৮৯ রান আর বল হাতে ৬ উইকেট শিকার করেন স্টোকস। তবে ক্যাপ্টেন মানে তো কেবল নিজ দায়িত্ব পালন নয়, পুরো দলের দায়িত্বটাই তখন কাঁধে। আর এই দায়িত্ব পালনেই ঘাম বেরিয়েছে স্টোকসের। তিনি বলেন, কাল রাতে (টেস্টের শেষদিনের আগের রাতে) একফোঁটা ঘুমাতে পারিনি। দল ভালো অবস্থায় ছিল না। জানতাম, এখান থেকে ম্যাচ বের করে আনা খুব কঠিন হবে।

আমি এখন বুঝতে পারছি কেন অধিনায়করা ম্যাচ চলাকালীন ঘুমাতে পারেনা।জো রুট ফিরছেন পরের টেস্টেই। তাকে পেলে যেন হাঁফ ছেড়ে বাঁচবেন স্টোকস।এই অলরাউন্ডার বলেন, রুট এইমূহুর্তে বিশ্বের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান। দলে ওকে খুব দরকার। আর ক্যাপ্টেন্সিতে তো বটেই। ও তাড়াতাড়ি ফিরুক এটাই আমি চাই। বেস্ট অব লাক জো। তবে ম্যাচে নেয়া দুটো বড় সিদ্ধান্তকে কোনভাবেই নিজের ভুল মানতে নারাজ স্টোকস।

সবশেষ দুই সিরিজে দলের সর্বোচ্চ উইকেটশিকারী স্টুয়ার্ট ব্রডকে একাদশের বাইরে রাখা এবং টস জিতে ব্যাটিং নেয়ার সিদ্ধান্তকে এখনো যৌক্তিক বলেই দাবি করছেন স্টোকস।