সিলেটে মাকে দা’ফনের সময় মা’রা গেলেন ছেলেও

দাফনের ফাইল ছবি।

বার্ধ’ক্যজনিত কারণে মা’রা যান মা। মৃত্যুর ১২ ঘণ্টা পর জা’নাজা শেষে মাকে দা’ফনের জন্য কব’রস্থানে যান ছেলে এবাদুর রহমানও। তবে সেখানেই লুটিয়ে পড়েন তিনি। পরে চিকিৎসক তাকে মৃ’ত ঘোষণা করেন। বুধবার সকালে সিলেটের কানাইঘাট সদর ইউপির সোনাপুর গ্রামে হৃদয়বিদারক এ ঘটনা ঘটেছে। মা ও ছেলের মৃ’ত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে। মৃ’ত এবাদুর ওই গ্রামের শহীদ আলীর ছেলে।

স্থানীয়রা জানান, মঙ্গলবার রাত ১০টায় বার্ধ’ক্যজনিত কারণে মারা যান এবাদুর রহমানের মা বয়োবৃদ্ধ সিদ্দেকা বেগম। বুধবার সকাল ১০ টায় সোনাপুর জামে মসজিদের সামনে জানাজা শেষে স্থানীয় ক’বরস্থানে দা’ফনের জন্য সিদ্দেকার মরদে’হ নিয়ে যাওয়া হয়। সে সময় মাকে দাফ’ন করতে কবরস্থানে যান ছেলে এবাদুরও। তখন আচমকা অসুস্থ হয়ে লুটিয়ে পড়েন তিনি। তাৎক্ষণিক তাকে উ’দ্ধার করে চিকিৎসকের কাছে নেয়া হয়। চিকিৎসক তাকে মৃ’ত ঘোষণা করেন।

মৃ’ত এবাদের আত্মীয় রুমান আহমদ জানান, এবাদুর মাকে প্রচ’ণ্ড ভালোবাসতেন। মায়ের মু’ত্যুর শোক সইতে না পেরে হৃ’দরোগে আক্রা’ন্ত তার মৃ’ত্যু হয়েছে ধারণা করা হচ্ছে। মাত্র ১২ ঘণ্টার ব্যবধানে মা ও ছেলে মৃ’ত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।-ডেইলি বাংলাদেশ