সবাই আমাকে ব্যবহার করে, জলিল ভাইও করলেন : আলম

কারো সহযোগিতায় আমি হিরো আলম হইনি। আমি কিন্তু কখনো অনন্ত জলিল ভাইকে ফোন দেইনি। তিনিই আমাকে ফোন দিয়েছেন। আমাকে আপনার সিনেমা থেকে বাদ দিয়েছেন, কোনো দুঃখ নাই। তবে আপনাকে একটা কথা বলতে চাই যে, হিরো আলমকে সবাই ব্যবহার করে, আমার মনে হয় অনন্ত জলিল ভাইও আমাকে ব্যবহার করেছেন।’ অনন্ত জলিলকে উদ্দেশ্য করে কথাগুলো বলছিলেন হিরো আলম।

এর আগে অনন্ত জলিল হিরো আলমকে নিয়ে সিনেমা বানানোর ঘোষণা দেন। কিন্তু বৃহস্পতিবার হিরো আলমের বিরুদ্ধে কিছু অভিযোগ তুলে সিনেমা থেকে তাকে বাদ দেয়ার কথা জানান অন্তত। এরপরেই নিজের বাদ পড়া নিয়ে ফেসবুক লাইভে এসে হিরো আলম বলেন কথাগুলো।

সিনেমা থেকে হিরো আলমকে বাদ দেয়ার অন্যতম কারণ হিসেবে অনন্ত বলেছিলেন, ‘সম্প্রতি হিরো আলমের কিছু অশ্লীল ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে সকলেই আবারো আমাকে নিষেধ করছেন তাকে নিয়ে সিনেমা না বানানোর। সবসময় আমি বিব্রত হচ্ছি, হিরো আলমের এসব বিতর্কিত বিষয়গুলোর জন্য।’ আর এসব কারণেই তাকে সিনেমা থেকে বাদ দেয়ার সিদ্ধান্ত বলে জানান অনন্ত।

এমন অভিযোগের পাল্টা উত্তর দিয়ে হিরো আলম বলেন, মাঝখানে একদিন এফডিসিতে সাংবাদিকদের অনন্ত ভাই বললেন যে, ‘হিরো আলমের বিরুদ্ধে অনেকেই অনেক কথা বলেছে, কিন্তু আমি এগুলোতে কান দেই না।’ প্রশ্ন করে হিরো আলম বলেন- তাহলে আজকে কী এমন হলো, যা শুনে আমাকে বাদ দিলেন তিনি? হিরো আলমের দাবি, অন্যের কানকথা শুনেই অনন্ত এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

লাইভে অভিমান করে হিরো আলম বলেন, ছোট হোক, আমিতো নিজেই প্রযোজনা করি। আমাকে যদি কেউ সিনেমায় না নেয়, তাতে আমার দুঃখ নেই। এসময় তিনি আরো জানান, সামনে আরো নতুন দুটো ছবিতে কাজ করারও প্রস্তাব আছে।

এদিকে অনন্ত জলিলের সিনেমার জন্য সাইনিং মানি হিসেবে পঞ্চাশ হাজার টাকা নিয়েছিলেন হিরো আলম। অনন্ত জলিল তার স্ট্যাটাসে জানিয়েছেন, যেহেতু তিনি সিনেমায় হিরো আলমকে নিতে পারছেন না, তাই সাইনিং মানিটাও ফেরত নেবেন না বলে জানালেও সে ৫০ হাজার টাকা হিরো আলম ফেরত দিবেন বলে জানান।

সূত্র: সমকাল।