সাকিবকে প্রাপ্য সম্মান দিল আইসিসি

ইংল্যাণ্ড আর ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ডের আয়োজনে ২০১৯ অর্থাৎ গত বছর আইসিসি বিশ্বকাপ খেলা হয়েছিল। আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯ এর এক বছর পূর্ণ হয়ে গিয়েছে। ইংল্যান্ডে খেলা হওয়া এই বিশ্বকাপে দারুন রোমাঞ্চ দেখতে পাওয়া গিয়েছে। যেখানে শেষ পর্যন্ত খেতাবি লড়াই নিউজিল্যান্ড আর ইংল্যান্ডের মধ্যে হয়েছিল। যেখানে বাউন্ডারির ব্যবধানে ইংল্যান্ড প্রথমবার বিশ্বকাপ জেতার কৃতিত্ব অর্জন করেছিল।

ক্রিকেটের জন্মদাতা ইংল্যান্ড ১৯৭৫ সালের প্রথম বিশ্বকাপ থেকেই এই সবচেয়ে বড়ো ক্রিকেট টুর্নামেন্টে অংশ নিয়ে চলেছে। কিন্তু তারা এত বছর ধরে বিশ্বকাপ জেতার সফলতা অর্জন করতে পারেনি। শেষে এই মুহূর্তটা তাদের কাছে তাদের আয়োজনে গত বছর খেলা বিশ্বকাপে আসে। এই ফাইনাল ম্যাচে দারুণ রোমাঞ্চ দেখতে পাওয়া গিয়েছিল। লর্ডসের ঐতিহাসিক মাঠে গত বছর ১৪ জুলাই ফাইনাল ম্যাচ খেলা হয়েছিল। যেখানে ম্যাচে দুই দলের স্কোরই সমান সমান ছিল। যারপর সুপার ওভারও সমান সমান হয়ে যায়। এরপর বাউন্ডারির ব্যবধানে ইংল্যান্ড নিউজিল্যান্ডকে হারিয়ে দেয়।

আইসিসি ২০১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপের পরের দিন ওই বিশ্বকাপে খেলা খেলোয়াড়দের একটি সেরা প্লেয়িং একাদশ দলের নির্বাচন করেছিল। আইসিসি ম্যাচের পরেরদিনই অর্থাৎ ১৫জুলাই ২০১৯এ নিজেদের টুইটার হ্যান্ডেল বেস্ট দলের নির্বাচন করেছিল। এরপর আইসিসি আরও একবার বিশ্বকাপের এক বছর পূর্ণ হওয়ায় ওই দলকে আবারও টুইটার হ্যান্ডেল থেকে শেয়ার করেছে। আইসিসি নিজেদের টুইতার হ্যান্ডেলে যে দল শেয়ার করেছে তাতে সেমিফাইনালে হারের মুখে পড়া ভারতীয় দল থেকে দুজন খেলোয়াড় রোহিত শর্মা আর জসপ্রীত বুমরাহকে রেখেছে।

আইসিসি এই বিশ্বকাপ ২০১৯ এর টিম অফ দ্যা টুর্নামেন্টে ১২জন খেলোয়াড়কে দলে জায়গা দিয়েছে যেখানে তারা দ্বাদশ ব্যক্তি হিসেবে ট্রেন্ট বোল্টকে জায়গা দিয়েছে। এই টিম অফ দ্যা টুর্নামেন্টের কথা বলা হলে ভারত থেকে রোহিত শর্মাকে বাছা হয়েছে, যার ব্যাট পুরো টুর্নামেন্টে ঝলসে উঠেছিল এবং তিনি পুরো টুর্নামেন্টে মোট ৬৪৮ রান করেছিলেন। অন্যদিকে ভারতের জোরে বোলার জসপ্রীত বুমরাহকেও দলে রাখা হয়েছে। বুমরাহ বিশ্বকাপ ২০১৯ এর পুরো টুর্নামেন্টে ১৯টি উইকেট নিয়েছিলেন। এই দুজন ভারতীয় খেলোয়াড় ছাড়াও ইংল্যান্ড থেকে ৪জন, অস্ট্রেলিয়া থেকে ২ জন, নিউজিল্যান্ড থেকে ৩জন আর একজন বাংলাদেশী খেলোয়াড়কে বাছা হয়েছিল। এই দলে রোহিত শর্মার সঙ্গে জেসন রয়কে ওপেনিংয়ের জন্য বাছা হয়েছে।

অন্যদিকে তিন নম্বরে কেন উইলিয়ামসনকে রাখা হয়েছে এবং তাকে দলের নেতৃত্ব দেওয়া হয়েছে। এরপর একে একে সাকিব আল হাসান, জো রুট আর বেন স্টোকসকে দলে রাখা হয়েছে। অন্যদিকে উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান হিসেবে অস্ট্রেলিয়ার অ্যালেক্স কেরিকে বাছা হয়েছে। এরপর বোলিং বিভাগে মিচেল স্টার্ক, জসপ্রীত বুমরাহ, লাকি ফার্গুসন, জোফ্রা আর্চাকে দলে শামি করা হয়েছে এবংস শেষে দ্বাদশ খেলোয়াড় হিসেবে ট্রেন্ট বোল্টকে রাখা হয়েছে। এই বিশ্বকাপে দুর্দান্ত ফর্মে ছিলেন সাকিব। বিশ্বকাপের সেরা একাদশে তার থাকাটা নিশ্চিতই ছিল।

এই রকম হলো পুরো দল: রোহিত শর্মা, জেসন রয়, কেন উইলিয়ামসন (অধিনায়ক), সাকিব আল হাসান, জো রুট, বেন স্টোকস, অ্যালেক্স কেরি (উইকেটকিপার), মিচেল স্টার্ক, জোফ্রা আর্চার, লাকি ফার্গুসন, জসপ্রীত বুমরাহ, ট্রেন্ট বোল্ট (দ্বাদশ ব্যক্তি)।