পিএইচডি করে সবজি বিক্রি করছেন!

করোনাভাই’রাস মানুষকে রাস্তায় নামিয়ে দিচ্ছে। বারবার লকডাউনের জেরে সাধারণ মানুষ আছে মহাবিপদে। একে তো এই করোনা পরিস্থিতিতে বহু মানুষ কাজ হারাচ্ছেন। ব্যবসায়ীরা ব্যাপক ক্ষ’তির মুখে পড়েছেন। তাঁদের ভবিষ্যত অনিশ্চিত হয়ে পড়ছে। তাই সরকারের লকডাউন থিওরি নিয়ে কথা বলছেন ভারতের একজন সবজি বিক্রেতা। তাও আবার ইংরেজিতে সমালোচনা করছেন। ইন্দোরের এই সবজি বিক্রেতার সেই ভি’ডিয়ো সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাই’রাল হয়েছে। এই ঘটনাটি ভারতে ঘটেছে।

জিনিউজ জানায়, তাঁর পকেটে রয়েছে পিএইচডি ডিগ্রি। তবুও তিনি চাকরি পাননি। এই দুঃসময়ে সংসার চালাতে সবজি বিক্রি করতে বাধ্য হয়েছেন। কিন্তু এখানেও বাধা। স্থানীয় প্রশাসন এসে তাঁকে সবজির গাড়ি তুলে নিতে বলেছে। সেই সবজি বিক্রেতা জানিয়েছেন, তাঁর দোকানের সামনে লোকজনের ভিড় নেই। দূরত্ব বজায় রেখে সবাই সবজি কিনছেন। তবুও প্রশাসন তাঁকে তুলে দিতে চাইছে। তা হলে তিনি সংসার খরচ চালাবেন কী করে! আর এত সব কথা তিনি বলছেন ঝরঝরে ইংরেজিতে।

সেই মহিলা জানান, তিনি পদার্থবিদ্যায় মাস্টার অফ সায়েন্স করেছেন। তার পর ২০১১ সালে আলিয়া বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পদার্থবিদ্যায় পিএইচডি করেছেন। তার পরও চাকরি পাননি। ‘বেসরকারি চাকরি করতে চাইনি। কিন্তু সরকারি চাকরি তাকে কে দেবে! তার নাম রায়সা আন্সারি।

কোনও কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় তাকে চাকরি দিতে চায় না। এবার প্রশাসনই বলে দিক সে কী করবেন! কোথায় যাবেন! সংসার তো চালাতে হবে।