থানায় প্রকাশ্যে ওসি’র ধূমপান: জিজ্ঞাসায় বললেন, ছবিটি কে তুলল?

মাদ’কের বিরু’দ্ধে পুলিশের জিরো টলারেন্স ঘোষণা দেওয়ার পর থানার ভেতর নিজ কক্ষে বসে প্রকাশ্যে ধূ’মপান করছেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাজমুল আহমেদ। বুধবার বিকেলের পর এমনই দু’টি ছবি ভাই’রাল হয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে। বিষয়টি নিয়ে ওসি নিজে যেমন বেকায়দায় পড়েছেন, তেমনি বিব্র’ত হয়েছেন জেলা পুলিশের র্শীষ কর্মকর্তারা।

জানা যায়, ১৯ এপ্রিল সরাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হিসেবে যোগদান করেন পুলিশ পরিদর্শক (ইন্সপেক্টর) নাজমুল আহমেদ। সরাইল থানায় যোগদানের পরেই মা’দকের বিরু’দ্ধে ‘জিরো টলারেন্স’ ঘোষণা করেন তিনি। কিন্তু বুধবার বিকালের পর সমাজিক যোগাযোগ মাধ্যম (ফেসবুক) ওসি নাজমুলের ধূ’মপানের দুইটি ছবি ছড়িয়ে পড়ে। নিজ কক্ষে বসে ধূ’মপান করার এই ছবি নিয়ে সমালোচনার ঝড় বইছে চারদিকে। দায়িত্বরত অবস্থায় ইউনির্ফম পরা একজন পুলিশ সদস্য ধূ’মপান করতে পারেন কিনা সেটি নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন কেউ কেউ।

এদিকে ওসির এই ধূ’মপান কাণ্ড নিয়ে বিব্র’ত জেলা পুলিশের র্শীষ কর্মকর্তারাও। নাম প্রকাশ্যে অনিচ্ছুক একজন জানান, ‘ওসি সাব নিয়মিত থানায় বসে সুখটান দেন। এসময় তার রুমসহ আশে পাশে গন্ধে থাকা যায় না।’ জেলা নাগরিক ফোরামের সহ সভাপতি আতাউর রহমান শাহীন বলেন, ‘ধূ’মপান সরকারিভাবে নি’ষিদ্ধ না হলেও সরকারি কোনো কর্মকর্তা দায়িত্বরত অবস্থায় ধূ’মপান করতে পারেন না। যদি কেউ এমনটি করেন, তাহলে সমাজে বিরূপ প্রতিক্রিয়া তৈরি হয়। এতে করে ধূ’মপায়ীরা উৎসাহিত হন’।

প্রকাশ্যে ধূ’মপানের বিষয়ে জানতে চাইলে সরাইল থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাজমুল আহমেদ বলেন, ‘এটি (ধূ’মপান) আমিই নতুন করলাম কিনা বুঝতেছি না। আমি আমার অফিস কাজ করতে ছিলাম, টেনশনে ছিলাম’। ছবিটি কে তুলল, বুঝতে পারছি না।’

সূত্র: যমুনা নিউজ।