আমার ‘হীরকজোড়া’: সাকিব আল হাসান

করোনাআক্রা’ন্ত পৃথিবীতে সুখে থাকাটা এখন অনেক ক’ঠিন। যারা আক্রা’ন্ত হচ্ছে, তাদেরকে তাড়া করছে মৃ’ত্যুভয়। সুস্থ হয়ে গেলেও আত’ঙ্ক কমছে না। আর যারা আক্রা’ন্ত হচ্ছে না, তাদেরও আত’ঙ্কে দিন কাটাতে হচ্ছে। এমন প’রিস্থিতিতে সুখি মানুষ খোঁ’জাটাই যেন বোকামির কাজ। এর মধ্যেও সুখি মানুষ যদি খুঁ’জতে যান, তাহলে বাংলাদেশের বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানকে দেখতে পারেন।

দুই কন্যা আলাইনা হাসান এবং ইরাম হাসানকে নিয়ে বেশ ভালোই সময় পার করছেন বাংলাদেশ দলের সাবেক এই অধিনায়ক। ফি’ক্সিং প্রস্তাবের বিষয়টি না জানানোর কারণে আইসিসির পক্ষ থেকে শা’স্তি ঘোষিত হওয়ার কারণে এক বছর এমনিতেই ক্রিকেট মাঠে নেই সাকিব। তারওপর করোনা প’রিস্থিতির কারণে এমনিতেই ক্রিকেট নেই। মার্চে সারা বিশ্বে করোনা প’রিস্থিতি উ’দ্বেগজনক হয়ে ওঠার মুহূর্তেই যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি জমান সাকিব।

সেখানেই ১৪ এপ্রিল দেখলেন দ্বিতীয় কন্যা সন্তানের মুখ। নাম রেখেছিলেন ইরাম হাসান। আলাইনা এবং ইরামকে নিয়ে এর আগেও ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়েছিলেন সাকিব। লিখেছিলেন, ‘দুই কন্যা আমার জীবনটাই বদলে দিয়েছে।’ আরও একবার দুই কন্যাকে লিখেছিলেন, ‘হীরকজোড়া’। এবার সাকিব আল হাসান দুই কন্যার অসাধারণ একটি ছবি নিজের আইডিতে পোস্ট করলেন, ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়ে। তার নিজের সাম্রাজ্যের ‘দুই রাজকন্যা’ উল্লেখ করে ঈদুল আজহার দুইদিন পর ছবি পোস্ট করে সাকিব লিখেছেন, ‘আমার রাজ্যের দুই রাজকন্যা।

সবাইকে ঈদুল আজহার বিলম্বিত শুভেচ্ছ।’ ছবিতে দেখা যাচ্ছে, একটি গাড় লাল রঙয়ের সোফার ওপর বসে আছে সাকিবের বড় মেয়ে আলাইনা এবং তার কোলে বসে আছে ছোট মেয়ে ইরাম হাসান। দু’জনের মুখই হাস্যোজ্জ্বল।