ক্রিকেট ইতিহাসে এই প্রথম বাবার হাতে শাস্তি পেল ছেলে

ওল্ড ট্রাফোর্ডে পাকিস্তানের বিপক্ষে সিরিজের প্রথম টেস্টে বাজে আচরণের জন্য ম্যাচ ফি’র ১৫ শতাংশ জরিমানা ও একটি ডিমেরিট পয়েন্ট পেয়েছেন ইংলিশ পেসার স্টুয়ার্ড ব্রড। আর ব্রডকে জরিমানা করেছেন তার বাবা ও ওই টেস্টের ম্যাচ রেফারি ক্রিস ব্রড। ক্রিকেট ইতিহাসে বাবার হাতে ছেলের শাস্তি পাওয়ার ঘটনা এই প্রথম। তবে বাবার কাছ থেকে এমন রায় পাওয়ার পর স্টোকসও থেমে থাকেননি। বাবার জন্যও তিনি ঠিক করে রেখেছেন এক ‘শাস্তি’।

পাকিস্তানের দ্বিতীয় ইনিংসে ইয়াসির শাহকে আউট করার পর সামনে গিয়ে বাজে অ’ঙ্গভঙ্গি করেছেন, বাজে ভাষায় কথাও বলেছেন। এতেই আইসিসির আচর’ণবিধির ২.৪ ধারাটি ভাঙেন ব্রড। এ কারণে তার ম্যাচ ফির ১৫ শতাংশ কেটে নেয়া হয়েছে। আর এই জরিমানা করেছেন ম্যাচের এলিট প্যানেলের রেফারি স্টুয়ার্ট ব্রডের বাবা ক্রিস ব্রড। বাবার কাছে অপ’রাধ স্বীকার করে নেয়ায় নতুন করে অবশ্য শুনানির প্রয়োজন পড়েনি ব্রডের।

শা’স্তির পাশাপাশি ব্রডের নামের পাশে একটা ডিমেরিট পয়েন্ট যোগ হয়েছে। সব মিলিয়ে তিনি পেলেন তিনটি ডিমেরিট পয়েন্ট। এ ঘটনাটি টুইটারে শেয়ার করেছে ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের সমর্থক গোষ্ঠী বার্মি আর্মি। তারা লিখেছে, স্টুয়ার্ট ব্রডকে জরিমানা ও একটি ডিমেরিট পয়েন্ট দিয়েছে তার বাবা ক্রিস ব্রড।

এই টুইটের নিচে আবার কমেন্ট করেছেন ব্রড। লিখেছেন, ‘ক্রিসমাসের কার্ড ও উপহার তালিকা থেকে তাকে বাদ দেয়া হলো।’ নিছক মজা করেই হয়তো বাবাকে আগামী বড়দিনের উপহার ও দাওয়াত কার্ড না দেয়ার কথা বলেছেন ৫০০ টেস্ট উইকেট নেয়া এই পেসার। তবে নেট দুনিয়ায় ভাইরাল হয়েছে তার সেই মন্তব্য।

স্টু্য়ার্ট ব্রডের বাবা ক্রিস ব্রড ইংল্যান্ডের হয়ে ২৫টি টেস্ট ও ৩৪টি ওয়ানডে খেলেছেন(১৯৮৪-৮৮)। এখন কাজ করছেন ম্যাচ রেফারি ও ধারাভাষ্যকার হিসেবে।