আপনাকে স্যালুট ও অসংখ্য ধন্যবাদ মাহি ভাই : মুশফিকুর রহিম

কবে অবসর নেবেন মহেন্দ্র সিং ধোনি? এই প্রশ্ন বেশ কয়েকবার করা হয়েছে খোদ মহেন্দ্র সিং ধোনিকে। এবার অবসরের ঘোষণা দিয়েছিলেন মাহেন্দ্র সিং ধোনি। শনিবার সন্ধ্যায় ইনস্টাগ্রাম পোস্টের মাধ্যমে ধোনি এই ঘোষণা দিয়েছেন। ইনস্টাগ্রামে ধোনি লিখেছেন, ‘ক্যারিয়ার জুড়ে আমাকে ভালোবাসা ও সমর্থন দেয়ার জন্য আপনাদের সকলকে ধন্যবাদ। ১৯:২৯ টা হতে আমাকে রিটায়ার্ড হিসেবে ধরে নিন।’

ধনীর সাথে অবসর নিয়েছেন ভারতের আরেক বিশ্বকাপজয়ী টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান সুরেশ রায়না। ধোনির মতো তিনিও ইনস্টাগ্রামকে বেছে নিয়েছেন অবসরের ঘোষণা জানানোর জন্য। ধোনির সঙ্গে একটি ছবি পোস্ট দিয়ে তিনি লিখেন, ‘এমন কিছু না কিন্তু মাহি তোমার সঙ্গে খেলা দারুণ ছিল। আমার হৃদয় গর্বে পরিপূর্ণ। আমি তোমার এই সফরে সঙ্গী হচ্ছি। ধন্যবাদ ভারত।

২০০৪ সালের ২৩ ডিসেম্বর চট্টগ্রামে বাংলাদেশের বিপক্ষে ওয়ানডে ম্যাচ খেলার মাধ্যমে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে প্রবেশ করেছিলেন ধোনি। তিনি আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সর্বশেষ ম্যাচ খেলেন গত বছরের জুলাইয়ে। বিশ্বকাপের ওই সেমিফাইনাল ম্যাচে নিউজিল্যান্ডের কাছে হেরে বিদায় নিয়েছিল ভারত। ধোনির অধিনায়কত্বে ২টি বিশ্বকাপ জিতেছে ভারত। একটি ২০০৭ সালে দক্ষিণ আফ্রিকায় অনুষ্ঠিত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। অন্যটি, ২০১১ সালে বাংলাদেশ, ভারত ও শ্রীলঙ্কায় অনুষ্ঠিত ওয়ানডে বিশ্বকাপ।

২০১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপের পর থেকেই ধোনিকে নিয়ে নিরন্তর জল্পনা। কবে তিনি অবসর গ্রহণ করবেন, তা নিয়ে প্রবল কৌতূহল। অথচ বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক নিজের অবসর নিয়ে একটি শব্দও খরচ করেননি এতদিন। হঠাৎ অবসর গ্রহণ করে সবাইকে চমকে দেবেন তিনি, তা ঘুণাক্ষরেও কেউ টের পাননি। এদিকে মহেন্দ্র সিং ধোনির অবসরের পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন বাংলাদেশ জাতীয় দলের একাধিক ক্রিকেটার।

বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহিম সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মাহিন্দ্র সিং ধোনি কে নিয়ে বলেছেন, ‘খেলাটির একজন কিংবদন্তী। একজন অসাধারণ নেতা, একজন অসাধারণ উইকেট রক্ষক, একজন অসাধারণ ফিনিশার, একজন অসাধারণ মানুষ ইত্যাদি ইত্যাদি। অনেক গুণের অধিকারী। আপনাকে স্যালুট ও অসংখ্য ধন্যবাদ মাহি ভাই।’