চীন থেকে ভারতকে বাঁচাতে সবথেকে ঘা’তক পরমাণু বিমানকে লাদাখ সীমান্তে মোতায়েন করবে আমেরিকা!

লাদাখ (Ladakh) সীমান্তে চীনের সেনার আক্রম’নাত্বক মনোভাব দেখে আমেরিকা (America) ভারতের (India) সাহায্যের জন্য তাঁদের সবথেকে উন্নত আর ঘা’তক পরমাণু বোম্বার B-2 স্প্রিট (B2 spirit stealth nuclear bombers) কে মোতায়েন করতে পারে। আমেরিকার এই বিমান এক সাথে ১৬ টি পরমাণু বোমা নিয়ে উড়তে পারে। এই বিমান খুব শীঘ্রই ভারতীয় বায়ুসেনার সাথে ফ্লাইট ওভার মিশন এবং সৈন্য অভ্যাস করতে চলেছে।

আমেরিকার সংবাদ মাধ্যম দ্য ন্যশানাল ইন্টারেস্ট অনুযায়ী, ভারত-আমেরিকার সংযুক্ত এই সৈন্য অভ্যাস ভারত-চীন সীমান্তেই করা হবে। ভারতের প্রতি বন্ধুত্ব জাহির করার সাথে সাথে আমেরিকা চীনে এয়ার ডিফেন্স সিস্টেমকেও সামনা সামনি দেখতে চায়। আর এরজন্য ভারত-চীন সীমান্ত সবথেকে ভালো জায়গা। আপাতত তিনটি বি-২ বোমারু বিমান আমেরিকার ডিয়েগো গার্সিয়ায় মোতায়েন আছে। যেখান থেকে ভারতের দূরত্ব মাত্র ১ হাজার মাইল।

আমেরিকা সেখান থেকে বিমান গুলোকে আফগানিস্তান আর ইরাকে হা’মলা করার জন্য পাঠায়। আমেরিকার বায়ুসেনা কম্যান্ডার কর্নেল ক্রিস্টোফার অনুযায়ী, ২৯ ঘণ্টার যাত্রা নির্ধারণ করে ওই বিমান গুলোকে ডিয়েগো গার্সিয়ায় নিয়ে আসা হয়েছে। কর্নেল ক্রিস্টোফার ভারতের নাম না নিয়েই বলেন, এই বিমান গুলোকে এখানে নিয়ে আসা এটাই বোঝায় যে, আমেরিকা তাঁদের বন্ধুদের জন্য চিন্তিত। উনি বলেন, এই বোম্বার টাস্ক’ফোর্স আমাদের ন্যাশানাল ডিফেন্স স্ট্যাটার্জির গুরুত্বপূর্ণ অংশ। আমেরিকা নিজেদের রণনীতি অনুযায়ী এই ঘা’তক বিমান গুলোকে বিশ্বের আলাদা আলাদা জায়গায় পাঠায়।

রিপোর্ট অনুযায়ী, এবার আমেরিকা সোজাসুজি চীনের এয়ার ডিফেন্স সিস্টেম S-400 আর S-300 এর সাথে নিতে চলেছে। চীন এই এয়ার ডিফেন্স গুলোকে ভারত-চীন সীমান্তে মোতায়েন করেছে। আর আমেরিকা সেই কারণেই ভারতীয় সীমান্তে এই ঘা’তক বিমান পাঠাতে চলেছে।-বাংলা হান্ট