আমি পাকিস্তান সফরে যেতে চাই : ইংল্যান্ড অধিনায়ক জো রুট

পাকিস্তানের মাটিতে ক্রিকেট খেলতে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন ইংল্যান্ড টেস্ট অধিনায়ক জো রুট। আইসিসির সূচি অনুযায়ী, ২০২২ সালের শেষ দিকে পাকিস্তানে তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলতে যাবার কথা ইংল্যান্ডের। ঐ সিরিজ নিয়েই এখন আলোচনা বেশি হচ্ছে। কারণ করোনার মধ্যেও বর্তমানে ইংল্যান্ড সফরে আছে পাকিস্তান।

আর এ কারণেই ২০২২ সালে ইংল্যান্ড দলের নির্ধারিত পাকিস্তান সফর করা উচিত বলে মনে করেছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি) ও সেদেশের অনেক সাবেক খেলোয়াড়রা। তবে ইতোমধ্যে পাকিস্তান সফরে যাবার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন ইংল্যান্ডের কোচ ক্রিস সিলভারউড। এবার সেই তালিকায় যোগ দিলেন ইংলিশ অধিনায়ক রুট। তিনি বলেন, ‘পাকিস্তান সফরে যেতে চাই আমি। তবে সবকিছু নির্ভর করছে বোর্ডের সিদ্বান্তের উপর।’

করোনার কারণে গেল মার্চ থেকে বিশ্ব ক্রিকেট থমকে ছিলো। অবশেষে গেল ৮ জুলাই থেকে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে নিয়ে দেশের মাটিতে তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজ আয়োজন করে ইংল্যান্ড এন্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড (ইসিবি)। ওয়েস্ট ইন্ডিজের সাথে টেস্ট লড়াই শেষে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজও খেলেছে ইংল্যান্ড। এখন পাকিস্তানের সাথে তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলছে।

তবে এই করোনার মধ্যে ইংল্যান্ড সফরের প্রস্তাবে পাকিস্তান রাজি হওয়ায় ইসিবি ঋণী থাকবে বলে সম্প্রতি বলেছেন সাবেক অধিনায়ক ওয়াসিম আকরাম। তিনি বলেছিলেন, ‘মহামারীর মধ্যেও ইংল্যান্ড সফর করলো পাকিস্তান। পাকিস্তান সফরে ইংল্যান্ডেরও যাওয়া উচিত।’

তবে পাকিস্তান সফরের ব্যাপারে ইতিবাচক ইঙ্গিত দিলেন ইংল্যান্ডের দলনেতা রুট। তিনি বলেন, ‘পাকিস্তান সফরে যেতে পারলে আমার খুব ভালো লাগবে। সেখানে গিয়ে খেলতে পারাটা দারুণ এক সুযোগ। কিন্তু দুর্ভাগ্যজনকভাবে, এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়ার দায়িত্ব আমার নয়, এটি বোর্ড সিদ্বান্ত নিবে। কিন্তু আমার মনে হচ্ছে, বেড়ানো এবং খেলার জন্য দারুন জায়গা পাকিস্তান।’

২০০৫-০৬ মৌসুমের পর আর পাকিস্তান সফরে যায়নি ইংল্যান্ড দল। ২০০৯ সালে সফররত শ্রীলংকা দল বহনকারী বাসে সন্ত্রাসী হামলা চালায় পাকিস্তানের জঙ্গিরা। এরপর থেকে পাকিস্তান সফর করা বন্ধ করে দেয় বিশ্বের টেস্ট খেলুড়ে দেশগুলো। ১৫ বছর হলো পাকিস্তান সফরে যায়নি ইংল্যান্ড। তাই স্বাভাবিকভাবে কখনো পাকিস্তান সফর করা হয়নি রুটেরও। কারণ আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে রুটের অভিষেক হয়েছে ২০১২ সালে। যে কারণেই পাকিস্তান সফরের জন্য আলাদা আগ্রহ রয়েছে রুটের।

তিনি বলেন, ‘পাকিস্তানে আমি কখনো যাইনি। সেখানকার উইকেট দেখে বেশ ভালোই মনে হয়, ব্যাটিং উপযোগী। অনেকের কাছে শুনেছিও। এখানে যেমন কন্ডিশনে খেলি, তার চেয়ে ভিন্ন উইকেটে খেলতে পারলে ভালোই লাগবে। পাকিস্তানের দর্শকরা ক্রিকেট পাগল। জাতীয় দলের খেলা হলেই মাঠ দর্শকে পরিপূর্ণ হয়ে যায়।’

শ্রীলংকা গেল বছরে অক্টোবরে পাকিস্তান সফরে গিয়েছিলো। শ্রীলংকার ঐ সফরটি নিয়ে বেশ খোঁজ-খবর রেখেছেন রুট। তিনি বলেন, ‘গত বছর পাকিস্তান সফর করেছে শ্রীলংকা, ক্রিকেট নিয়ে তাদের মধ্যে আবেগটা সবাই টের পেয়েছে। এ ছাড়া কয়েকজন খেলোয়াড়ের সাথে আমি কথা বলেছি, পাকিস্তানে আবার খেলতে পেরে তারাও খুশি হয়েছে।’

সূত্র : বাসস