তুরস্কের সাথে উত্তে’জনা মধ্যেই গ্রিসে এফ-১৬ পাঠাল আরব আমিরাত

সংযুক্ত আরব আমিরাত গ্রিসের সাথে সামরিক প্রশিক্ষণ মহড়ায় অংশ নিতে ক্রেট দ্বীপে চারটি এফ -১৬ যু’দ্ধবিমান পাঠিয়েছে। শুক্রবার অ্যাথেন্স ভিত্তিক দৈনিক পত্রিকা কাঠিমেরিনি এ খবর জানিয়েছে। পত্রিকার বরাতে জানা গেছে, তুরস্কের সাথে পূর্ব ভূমধ্যসাগরে গ্রিসের চলমান উত্তে’জনার মধ্যেই গ্রিসের সেনাবাহিনীর সাথে এই ট্রেনিংয়ে অংশ নিচ্ছে আমিরাতের এই যু’দ্ধ বিমানগুলো।

গত মাসে গ্রিসের দাবিকৃত পানিসীমায় হাইড্রো’কার্বন অনুসন্ধানে তুরস্ক নৌ-বহর পাঠানোর পর গ্রিসের সাথে তুরস্কের উত্তে’জনা সৃষ্টি হয়। গত সপ্তাহে ফরাসি প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল মাক্রো এই পানিসীমায় তেল ও গ্যাস অনুসন্ধান বন্ধ রাখতে তুরস্কের কাছে অনুরোধ জানায়। এই উত্তে’জনায় গ্রিসের সাথে ফান্স, ইসরাইল, সাইপ্রাস ও মিসর রয়েছে।

ইউরোপিয় ইউনিয়ন ও যুক্তরাষ্ট্রের দাবির মুখে এ বছরের শুরুতে তুরস্ক এ অঞ্চলে অনুসন্ধান কার্যক্রম বন্ধ রাখলেও আগস্টের ১০ তারিখ তু’র্কি অনুসন্ধানী জাহাজ উরক রেইস পাঠায়। তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়েব এরদোগান বলেন, ভূমধ্যসাগর সমস্যার সমাধান একমাত্র আলোচনার মাধ্যমেই মেটানো সম্ভব। তিনি বলেন, আমরা যদি বাস্তবতা ও যুক্তি দিয়ে চিন্তা করি তাহলে এ অঞ্চলে উভয় পক্ষের উপযুক্ত সমাধান খুঁজে পেতে পারি যাতে সবাই লাভবান হতে পারে।

গতকাল দ্য সানডে টাইমস পত্রিকার রিপোর্ট অনুযায়ী তুরস্ককে প্রতিহত করতে মিসর, আরব আমিরাত ও সৌদি আররের সাথে আলোচনা শুরু করেছে ইসরাইল। তুরস্ককে মোসাদ প্রধান ইয়োসি কোহেন “বড় ধরণের হু’মকি” হিসেবে উল্লেখ করেন। –মিডল ইস্ট মনিটর।