৩ মাসের প্রসূ’তির পেটে লা’থি, মাঝরাতে জানলা ভেঙে গৃহবধূকে খু’নের চেষ্টা নেতার!

মধ্যরাতে ঘরের জানলা ভে’ঙে সদ্য প্রসূ’তির পেটে লা’থি মারার অভিযোগ উঠল ভারতের তৃণমূল নেতার বিরু’দ্ধে। শুধু তাই নয়, ৩ মাসের শিশুসন্তানকেও খু’নের চেষ্টার অভিযোগ উঠল। অভিযুক্ত তৃণমূল নেতার নাম বাপি মণ্ডল। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের দক্ষিণ ২৪ পরগনার জীবনতলা থানার রবীন্দ্রনগর গ্রামে। আ’ক্রান্ত প্রসূ’তির নাম মধুমিতা হালদার। বয়স ২৬ বছর।

অভিযোগ, সোমবার মধ্যরাতে ঘরের জানলা ভে’ঙে মধুমিতা হালদারের স্বামীকে খু’ন করতে আসেন স্থানীয় কয়েকজন তৃণমূল কর্মী। কিন্তু ঘরের মধ্যে স্বামীকে না পেয়ে স্ত্রী মধুমিতা হালদারের পেটে লা’থি মারে’ন তাঁরা। ৩ মাস আগেই সিজার করে সন্তানের জন্ম দিয়েছেন মধুমিতা হালদার। লা’থির আঘা’তে পেটে গু’রুতর চোট পান ওই গৃহবধূ। অভিযোগ, তৃণমূল কর্মীদের মারের হাত থেকে রেহাই পাননি তিন মাসের শিশুসন্তানও। তাকেও খু’ন করার চেষ্টা করে দুষ্কৃতীরা।

এরপরই আ’ক্রান্ত গৃহবধূ মধুমিতা হালদার কোনওমতে সেখান থেকে শিশুসন্তানকে নিয়ে পালিয়ে জীবনতলা থা’নার ঘুটিয়ারি শরিফ ফাঁড়িতে ছুটে আসেন। এই ঘটনায় অভিযুক্ত তৃণমূল নেতা বাপি মণ্ডলের বিরু’দ্ধে ফাঁড়িতে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন তিনি। অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।