মেসি প্রকাশ্যে বার্সা ছাড়ার ঘোষণা দিলে প্রেসিডেন্ট পদ ছাড়বেন বার্তোমেউ

মেসি প্রকাশ্যে বার্সায় থেকে যাওয়ার সিদ্ধান্ত ঘোষণা করলে প্রেসিডেন্ট পদ থেকে ইস্তফা দেবেন জোসেপ মারিয়া বার্তোমেউ। স্পেনীয় সংবাদ মাধ্যমে এ দাবি করা হয়েছে। গত বুধবার বুরোফ্যাক্স (আইনি মহলে বেশি প্রসিদ্ধ এবং স্বাক্ষর-সহ গ্রহণ করতে হয়) পাঠিয়ে ক্লাবকে মেসি জানান, ‘ফ্রি প্লেয়ার’ হিসেবে অবিলম্বে যেন তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়। যা নিয়ে আলোড়ন পড়ে গিয়েছে বিশ্বে। ক্যাম্প ন্যু-র সামনে বিক্ষো’ভে সামিল হয়ে প্রেসিডেন্টের পদত্যা’গের দাবিতে সরব হয়েছেন বার্সা সমর্থকেরা।

বার্সেলোনা শহরের মেয়র পর্যন্ত মেসিকে রেখে দেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন। পরিস্থিতি এতটাই অ’গ্নিগ’র্ভ যে বার্তোমেউ সংবাদ মাধ্যমকে এড়িয়ে চলছেন। তাই ক্লাবের নবনিযুক্ত স্পোর্টিং ডিরেক্টর রামন প্লেনসকেই বলতে হয়েছে, মেসিকে মধ্যমণি করেই তারা দল গড়তে চাইছেন। তবে স্পেনীয় সংবাদ মাধ্যমের দাবি, বার্তোমেউ নিজেই নাকি মেসির সঙ্গে আলোচনায় বসার ইচ্ছাপ্রকাশ করেছেন।

এর পরেই জল্পনা শুরু হয়, ছ’বারের ব্যালন ডি’অর জয়ী ক্ষু’ব্ধ তারকা কি রাজি হবেন এই বৈঠকে? বুধবার লুইস সুয়ারেজের সঙ্গে নৈশভোজ করতে বেরোনো মেসির ক্লাব ছাড়ার অন্যতম কারণ তো প্রেসিডেন্টের সঙ্গে সঙ্ঘাত। বৃহস্পতিবার স্পেনীয় সংবাদ মাধ্যম দাবি করেছে, কোনও অবস্থাতেই বার্তেমেউয়ের সঙ্গে কথা বলতে রাজি নন মেসি। রাতের দিকে বার্তোমেউ পদত্যা’গ করার ইচ্ছাপ্রকাশ করায় পরিস্থিতি সম্পূর্ণ বদলে গিয়েছে। ওয়াকিবহাল মহলের মতে, ক্লাব প্রেসিডেন্টের এই সিদ্ধান্ত আসলে মেসিকে চাপে ফেলার কৌশল।

আর্জেন্টিনা অধিনায়কের বিরু’দ্ধে ক্লাবকে নিয়’ন্ত্রণ করার অভিযোগ উঠেছিল। যদিও মেসি বার বারই তা খারিজ করে দিয়েছেন। পরিবর্তিত পরিস্থিতিতেও রবিবার বার্সার ট্রেনিং কমপ্লেক্সে স্বাস্থ্য পরীক্ষা (পিসিআর টেস্ট) করাতে যাবেন মেসি। শুধু তাই নয়। পরের দিন অর্থাৎ, সোমবার রোনাল্ড কোম্যানের প্রথম দিনের অনুশীলনেও যোগ দেবেন তিনি।

প্রশ্ন উঠছে, ক্লাব ছাড়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া মেসি কেন অনুশীলনে যোগ দেবেন? কারণ, বার্সার সঙ্গে আর্জেন্টিনীয় কিংবদন্তির চুক্তি শেষ হচ্ছে ২০২১ সালে। অনুশীলনে যোগ না দিলে শৃ’ঙ্খলাভ’ঙ্গের অভিযোগে মেসির বি’রুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে পারেন ক্লাব কর্তৃপক্ষ।