সাইফ হাসানের মায়ের বাড়ি শ্রীলঙ্কা

এক দেশে জন্ম নিয়ে অন্য দেশের হয়ে ক্রিকেট খেলার অসংখ্য উদাহরণ পাওয়া যাবে। ইংল্যান্ডের বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক ইয়োইন মরগ্যান (আয়ারল্যান্ড), পেসার জোফরা আর্চার (বার্বাডোজ) কিংবা অল-রাউন্ডার বেন স্টোকস (নিউজিল্যান্ড)- তারা সবাই এসেছেন অন্য দেশ থেকে। বাংলাদেশের একজন ক্রিকেটারের ক্ষেত্রে কাছাকাছি এই উদাহরণ আছে। তিনি সাইফ হাসান। ২১ বছর বয়সী এই তরুণের মা কিন্তু শ্রীলঙ্কান।

১৯৯৫ সালে কর্মসূত্রে সাইফের বাবা গিয়েছিলেন সৌদি আরবে। সেখানে পরিচয় হয় শ্রীলঙ্কান এক তরুণীর সঙ্গে। এরপর পরিণয় এবং বিয়ে। ১৯৯৮ সালে তাদের ঘর আলো করে পৃথিবীতে আসেন সাইফ হাসান। যিনি এখন বাংলাদেশের ক্রিকেটে অন্যতম সম্ভাবনাময় একজন তরুণ তারকা। এর আগে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দলের হয়ে খেলতে গিয়ে সেখানে মায়ের দিকের কয়েকজন আত্মীয়ের সঙ্গে সাইফের দেখা হয়েছিল।

সময়টা কেটেছিল খুব মধুর। তবে পুরো সফরে আক্ষেপ ছিল একটাই, শ্রীলঙ্কার খাবার তার পছন্দ হয়নি। সামনেই সাইফের সামনে সুযোগ আছে জাতীয় দলের জার্সিতে মায়ের দেশে গিয়ে টেস্ট খেলার। এজন্য তিনি বিসিবির আয়োজনে চলমান ব্যক্তিগত অনুশীলন করে যাচ্ছেন। তিন ম্যাচ টেস্ট সিরিজ খেলার জন্য আগামী ২৪ অথবা ২৫ সেপ্টেম্বর শ্রীলঙ্কা সফর করতে পারে টাইগাররা। অক্টোবরের ২৪ তারিখ থেকে টেস্ট সিরিজ শুরু হওয়ার কথা।

এই সিরিজ দিয়েই দীর্ঘদিন পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেট শুরু করবে বাংলাদেশ। সেই সফরে যাওয়ার দলে সুযোগ করে নিতে এখন নিজেকে নিয়মিত ঝালিয়ে নিচ্ছেন সাইফ।

সূত্র: কালের কণ্ঠ অনলাইন।