মাদারীপুরে আওয়ামী লীগ নেতা হ’ত্যাচেষ্টা : প্রেমিকসহ স্ত্রী গ্রে’প্তার

মাদারীপুরে জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ইলিয়াস আহম্মেদ হাওলাদারকে হ’ত্যাচেষ্টা মাম’লায় পরকীয়া প্রেমিকসহ স্ত্রী মিলি আক্তারকে (৪২) গ্রে’প্তার করেছে জেলার গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। শুক্রবার রাতে রাজধানীর মিরপুরের মনিপুর এলাকার একটি বাসা থেকে তাঁকে গ্রে’প্তার করা হয়। এসময় পৃথক স্থান থেকে মিলির পরকীয়া প্রেমিক সাইদুর রহমান জাহিদকেও গ্রে’ফতার করেছে পুলিশ। পরে মিলি ও জাহিদকে মাদারীপুর পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে নিয়ে আসা হয়।

পুলিশ ও মা’মলার সূত্র জানায়, চলতি মাসের ২০ তারিখ ভোররাতে ঘুমন্ত অবস্থায় ইলিয়াস আহম্মেদকে মসলা বাটার শিল দিয়ে মাথায় গুরুত’র আ’ঘাত করেন স্ত্রী মিলি আক্তার। গুরু’তর অবস্থায় উ’দ্ধার করে তাঁকে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবন’তি হলে তাঁকে পাঠানো হয়েছে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। এরপর তিনি ঢাকার একটি বেসরকারি হাসপাতালে চি’কিৎসা নেন।

এ ঘটনায় ২৩ আগস্ট ইলিয়াস নিজে বাদী হয়ে সদর মডেল থা’নায় একটি হ’ত্যাচে’ষ্টা মা’মলা করেন। মা’মলায় স্ত্রী মিলিকে একমাত্র আ’সামি ও অ’জ্ঞাতনামা আরও পাঁচজনের নাম উল্লেখ করা হয়েছে। এ সম্পর্কে মাদারীপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আব্দুল হান্নান মিয়া বলেন, ‘স্বামীকে হ’ত্যাচেষ্টা মাম’লায় স্ত্রীকে আমরা ঢাকা থেকে গ্রে’প্তার করা হয়েছে। তাকে ও তার পরকী’য়া প্রেমিক জাহিদকে পুলিশ হেফাজতে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তাদের আজ আদা’লতে তোলা হবে।’

এই পুলিশ কর্মকর্তা আরও বলেন, ফেসবুকের মাধ্যমে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্র সাইদুর রহমান জাহিদের সাথে পরিচয় হয়। জাহিদ চট্টগ্রামের সন্দীপের বাসিন্দা। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে মিলি জানিয়েছেন, দা’ম্পত্য জীবনে কলহ, তর্ক-বি’তর্কের কারণেই নোড়া দিয়ে স্বামীকে মাথায় আ’ঘাত করেন। আ’ঘাত করেই তিনি ঢাকায় এসে একজনের বাসায় আত্ম’গোপ’নে ছিলেন। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আরো বিস্তারিত বলা যাবে।

সূত্র: নিউজ টোয়েন্টিফোর