কমলার চেয়ে আমার মেয়ে ইভাঙ্কা অনেক বেশি যোগ্য, বললেন ট্রাম্প

ডেমো’ক্র্যাট প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী জো বাইডেন রানিংমেট হিসেবে মনোনীত করেছেন ভারতীয় বংশো’দ্ভূত কমলা হ্যারিসকে। তবে বাইডেনের এই সিদ্ধান্ত পছন্দ হয়নি রিপাবলিকান প্রার্থী ও বর্তমান প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের। কমলাকে ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসেবে ‘অযো’গ্য’ বলে বসলেন তিনি। এমনকি যোগ্য’তার নিরিখে কমলার চেয়ে তাঁর মেয়ে ইভাঙ্কা ঢের এগিয়ে বলে দাবি করলেন ট্রাম্প।

শুক্রবার নিউ হ্যাম্প’শায়ারে প্রচার সমাবেশের বক্তৃতায় ট্রাম্প বলেন, জো বাইডেনের রানিংমেট কমলা একেবারেই অযো’গ্য। এমনকি কমলার চেয়ে আমার মেয়ে ইভাঙ্কা অনেক বেশি যোগ্য। সমাবেশে বাইডেনের চেয়ে কমলাকে বেশি আক্র’মণ করতে দেখা যায় ট্রাম্পের।

একদিন আগেই আনুষ্ঠানিক ভাবে রিপাবলিকান দলের মনোনয়ন গ্রহণ করেন ট্রাম্প। তার পর শুক্রবার সপরি’বারে হ্যাম্পা’শায়ারে রিপাবলিকান ন্যাশনাল কনভেশনে যোগ দেন। সেখানেই সমর্থকদের সামনে কমলা হ্যারিসকে তী’ব্র আক্র’মণ করেন তিনি।

ট্রাম্প বলেন, ‘আমিও চাই কোনো নারী প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হোন। কিন্তু উনি (কমলা) যে ভাবে প্রেসিডে’ন্সিয়াল পদ পাওয়ার জন্য এগোচ্ছিলেন, সে ভাবে কোনো নারীকে দেখতে চাই না আমি। উনি একেবারেই যোগ্য নন। হ্যারিসকে ভাইস প্রেসি’ডেন্ট হিসাবে মনোনয়ন জো বাইডেনের ব্য’র্থতা।’

ট্রাম্প এই মন্তব্যের পরেই তাঁর সমর্থকরা ইভাঙ্কার নামে স্লো’গান দিতে শুরু করেন। তাতে ট্রাম্প বলেন, ‘দেখুন সকলেই বলছেন, আমরা ইভাঙ্কাকে চাই। আমি আপনাদের দো’ষ দিচ্ছি না।’ এর পর কমলাকে আক্র’মণ করে ট্রাম্প বলেন, ‘ওঁর কী যোগ্যতা? সৌন্দর্য? হ্যাঁ উনি সুন্দরী বটে। কিন্তু ওরা এমন এক জন নারীকে বেছে নিয়েছে, যিনি প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী হিসেবে প্রচার তো ভাল ভাবেই শুরু করেছিলেন।

কিন্তু কয়েক মাসের মধ্যেই তাঁর জনপ্রিয়তা ১৫ থেকে ১২, সেখান থেকে ৯, ৮, ৫, ৩ এবং‌ ২— ক্র’মাগত নামতেই থাকে। তাতেই উনি জানিয়ে দেন, আমি সরে যাচ্ছি। এটাই আমার সিদ্ধান্ত। আসলে ভোট পাবেন না জেনেই সরে গিয়েছিলেন। উনি যদি আপনাদের প্রেসিডেন্ট হতেন, ভয়’ঙ্কর রকমের খারাপ প্রেসিডেন্ট হতেন।’

জো বাইডেন এবং কমলা হ্যারিসকে তুরুপের তাস করে বহিঃশ’ত্রুরা আমেরিকাকে ধ্বং’স করে দেওয়ার চক্রা’ন্ত করছে বলেও দাবি করেন ট্রাম্প। আসন্ন মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে একটা সময় জো বাইডেনের প্রতিদ্ব’ন্দ্বী ছিলেন কমলা হ্যারিস। ডেমো’ক্র্যাট বিত’র্কসভায় এক সময় জনসম’ক্ষে বাইডেনকে খুবই কড়া ভাষায় আক্র’মণ করেছিলেন তিনি। কিন্তু জনপ্রিয়তা ও সম’র্থনের দৌড়ে পিছিয়ে পড়ে গত বছর নির্বাচন থেকে তিনি সরে দাঁড়ান।

তার পর পুরনো শ’ত্রুতা দূরে রেখে, আসন্ন নির্বাচনকে পাখির চোখ করে প্রতিদ্ব’ন্দ্বী কমলাকে ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসাবে বেছে নেন বাইডেন। তাঁর এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়ে এটাকে বাইডেনের প্রেসিডেন্ট হওয়ার জন্য সঠিক প্রচেষ্টা বলে মনে করছেন ডেমোক্র্যা’টরা।

সূত্র : দ্য ডেইলি বেস্ট।