অবশেষে মেসির বুদ্ধির খেলায় পরা’স্ত বার্তামেউ

বার্সেলোনা ছাড়ার কথা জানিয়ে দিয়েছেন লিওনেল মেসি। ম্যানসিটি কোচ পেপ গার্দিওয়ালার সঙ্গে কথাও বলে রেখেছেন। মেসির বার্সা ছাড়া শুধু রিলিজ ক্লজের শর্তে আটকে আছে। এমনকি বোর্ড প্রেসিডেন্ট মারিও বার্তামেউ পদত্যাগ করলেও মেসি বার্সায় থাকবেন না।

হিসেবটা ভালো মতো কষেই মেসির ওপর একটা ট্রাম কার্ড মেরেছিলেন বার্সেলোনা প্রেসিডেন্ট মারিও বার্তামেউ। মেসি যদি বার্সায় থাকেন তবে পদ’ত্যাগ করবেন বলে জানান তিনি। শর্ত হলো, নিজ মুখেই মেসিকে বলতে হবে তিনি বার্সায় থাকছেন।

বার্তামেউ আগে থেকেই বুঝে গিয়েছিলেন, মেসি এই শর্তে রাজি হবেন না। বার্সা ছাড়ারও মত বদলাবেন না। তিনি তাই সুযোগ বুঝে নিজের ইমেজ পরিষ্কার করার চেষ্টা চালিয়েছেন। বার্সা তথা বিশ্বের ফুটবল ভক্তদের বোঝাতে চেয়েছেন, মেসিই ক্লাবের সব। মেসির জন্য বার্তামেউ পদ’ত্যাগেও রাজি। কিন্তু মেসি বার্সায় থাকছেন না। ক্লাবের দু’র্দিনে ছেড়ে চলে যাচ্ছেন।

বার্তামেউয়ের এই পরিকল্পনার ওপর টেক্কা মেরে দিয়েছেন লিওনেল মেসি। প্রথমে লিও বলেছিলেন অনুশীলনে গেলেও বার্তামেউয়ের সঙ্গে দেখা কিংবা আলাপ করবেন না তিনি। কিন্তু এখন মেসি বলছেন, তিনি বার্সা প্রেসিডেন্ট এবং বোর্ড পরিচালকদের সঙ্গে বৈঠক করতে চান। তাদের সঙ্গে সমঝোতা করে ক্লাব ছাড়তে চান। কোন যু’দ্ধ চান না। কারও মন চটাতে চান না। আই’নি ঝামেলা চান না।

মেসির এই প্রস্তাবে কোণ’ঠাসা বার্সার বোর্ড প্রেসিডেন্ট এবং পরিচালকরা। কারণ মেসি বলছেন, তিনি সমঝোতা চান, যু’দ্ধ চান না। আলোচনায় বসলে তাই মেসির ক্লাব ছাড়ার ইচ্ছায় সম্মতি দিতে হতে পারে। তাকে রিলিজ ক্লজের শর্ত থেকে মুক্তি দিতে হতে পারে। বার্সা কর্তৃপক্ষ তাই মেসির আলোচনার প্রস্তাব প্রত্যা’খ্যান করতে বাধ্য হয়েছে। প্রস্তাব নাকচ করায় ভিলেন বার্তামেউয়ের নায়ক হওয়া হলো না।-সমকাল।