মেসিকে সহায়তার জন্য বিলুপ্ত বার্সার ল ফার্ম; কোম্যানও অনিশ্চিত

বার্সেলোনা ছাড়ছেন মেসি। ইউসিএল পরবর্তী সময়ের সবচেয়ে আলোচিত ঘটনা। শুধু ফুটবল দুনিয়া নয় সমগ্র পৃথিবী আলোড়িত হয়েছে এই একটি খবরে। মেসি যাচ্ছেন কোন ক্লকবে তা নিয়ে শুরু হয়েছে নানান গুজব। মেসি চলে যাবেন বার্সেলোনা ছেড়ে এটা বার্সেলোনার জন্য যতটা হতাশার তার চেয়েও বড় হতাশাজনক সংবাদ হচ্ছে তাসের ঘরের মতো নড়বড়ে হয়েছে বার্সেলোনা ক্লাব। এই মুহুর্তে তাদের নেই কোন ম্যানেজার এবং ল ফার্ম। ১৩ দিন পরেই শুরু হচ্ছে লালীগা।

এই ১৩ দিনেই কতটা গুছিয়ে উঠতে পারবে ক্লাবটি? মেসি বার্সেলোনা বোর্ডকে ব্যুরোফ্যাক্স পাঠিয়ে বলেছে সে ক্লাব ছাড়তে চায়। অনেক জল্পনা কল্পনা থাকলেও মেসিকে আটকানোর কোন উপায় হয়ত শেষমেশ পাচ্ছেনা কাতালানরা। আজ বার্সেলোনার প্লেয়ারদের কোভিড টেস্টে আসেননি লিও মেসি। যোগ দেননি অনুশীলনেও। বার্সা তাদের ‘Law Firm’ কে স্যাক করেছে মেসিকে ক্লাব ছাড়ার ব্যাপারে সাহায্য করার জন্য। বর্তমানে ক্লাবটির ‘ল ফার্ম’ বিলুপ্ত।

বার্সা কোয়েমান কে অফিসিয়ালি রেজিস্ট্রার করতে পারছে না, কারন তারা সেতিয়ান কে এখনো কাগজে কলমে সকল পাওনা পরিশোধ করে ডিসমিস করে নি। সেতিয়ান বোর্ড কে ব্যুরোফ্যাক্স পাঠিয়েছে তার পাওনা টাকা চেয়ে। সুয়ারেজকে রাখবেন না নতুন কোচ কোয়েম্যান। ক্লাব ছাড়ার আগে সুয়ারেজ কন্ট্রাক্টের ফুল টাকা চাইছেন। বার্সেলোনা এখন পর্যন্ত কাউকে বিক্রিও করতে পারেনি, যদিও তাদের বিক্রির তালিকাটা অনেক বড়। ঢেলে সাজানোর প্রচেষ্টা ব্যাহত হচ্ছে কাউকে বিক্রি করতে না পারায়। কোন পজিশনে কাকে কিনতে আগ্রহী তাও অনেকটা অনিশ্চিত।

মেসির চলে যাওয়ার সিদ্ধান্ত বার্সেলোনার পরিকল্পনার বাইরে থাকায় এই সিদ্ধান্ত বার্সেলোনার আগামী মৌসুমের সকল পরিকল্পনাকেই ভিন্ন পথে পরিচালিত করতে বাধ্য করছে। ১৩ দিন পরে লালীগা শুরুর আগে কোম্যান এবং ল ফার্মের সঠিক ব্যবস্থাপনা করতে না পারলে আরও অনেক বড় বিড়ম্বনাই অপেক্ষা করছে এই ক্লাবটির জন্য।