মরগান-মালানের টর্নেডো ইনিংসে ইংল্যান্ডের রেকর্ড গড়া জয়

তিন ম্যাচ সিরিজের দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে পাকিস্তানকে ৫ উইকেটে হারিয়েছে স্বাগতিক ইংল্যান্ড। মরগান-মালানের ঝড়ো অর্ধশতকে রেকর্ড গড়া জয়ে সিরিজে ১-০ তে এগিয়ে গেল স্বাগতিকরা। আর পাকিস্তানের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি ইতিহাসে ইংল্যান্ডের এটি সর্বোচ্চ রান তাড়া করা জয়। এছাড়া যেকোনো দলের বিপক্ষে ইংল্যান্ডের এটি তৃতীয় সর্বোচ্চ রান চেজ করা জয়।

পাকিস্তানের দেওয়া ১৯৫ রানের জবাবে ৫ বল বাকি থাকতেই বড় লক্ষ্য টপকে যায় ইংল্যান্ড। ইংলিশদের দুই ওপেনার জনি বেয়ারস্টো ও টম ব্যান্টন শুরু থেকে দুর্দান্ত খেলতে থাকেন। যেখানে একপাশ থেকে মারমুখী খেলতে থাকা বেয়ারস্টো ২৪ বলের মোকাবিলায় ২ ছক্কা ও ৪ চারে ৪৪ রানের ইনিংস খেলে ফিরেন। পাক স্পিনার সাদাবের পরের বলেই আগের ম্যাচে দুর্দান্ত খেলতে থাকা ব্যান্টনও ২০ রান করে ফিরেন।

এরপর আর ইংলিশদের আটকাতে পারেনি পাক বোলাররা। মরগান ও মালান মিলে একে একে সফরকারী বোলারদের সীমানাছাড়া করেছেন। দু’জনে ১১২ রানের জুটি গড়ে ৩৩ বল খেলে ৪ ছক্কা ও ৬ চারে ৬৬ রানের ইনিংস খেলে ফিরেন অধিনায়ক মরগান। এরপর ১ ছয় ও ৬ চারে মালানের ৩৬ বলে ৫৪ রানের অপরাজিত ইনিংসে ৫ উইকেটে জয় পায় ইংল্যান্ড।

এর আগে ম্যানচেস্টারের ওল্ডট্রাফোর্ডে টস হেরে আগে ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকে দুর্দান্ত খেলতে থাকেন পাকিস্তানি দুই ওপেনার বাবর আজম ও ফখর জামান। দু’জনে মিলে ৭২ রানের জুটি গড়লে ১ ছক্কা ও ৫ চারে ২২ বলে ৩৬ রানের ইনিংস খেলে ফিরেন ফখর।এরপর মোহাম্মদ হাফিজকে নিয়ে দুর্দান্ত অর্ধশতক হাঁকান বাবর আজম। তবে এরপর আর ইনিংস বড় করতে পারেননি টি-টোয়েন্টির এক নম্বর ব্যাটসম্যান। ৭ চারে ৪৪ বলে ৫৬ রান করেন বাবর। এরপর শোয়েব মালিক আসলেও ১৪ করে প্যাভিলিয়নের পথ ধরেন।

তবে বাবরের পর হাফিজও ২৭ বলে দুর্দান্ত অর্ধশতক হাঁকান। শেষ দিকে তার ৩৬ বলে ৪ ছক্কা ও ৫ চারে ৬৯ রানের ঝড়ো ইনিংসে নির্ধারিত ২০ ওভারে ১৯৫ রান সংগ্রহ করে সফরকারী পাকিস্তান।

সংক্ষিপ্ত স্কোর-
পাকিস্তান: ১৯৫/৪(২০)
হাফিজ ৬৯(৩৬) , বাবর ৫৬(৪৪)
আদিল রশিদ ২/৩২, জর্ডান ১/৪১

ইংল্যান্ড: ১৯৯/৫(১৯.১)
মরগান ৬৬(৩৩), মালান ৫৪(৩৬)*
সাদাব ৩৪/৩, হারিস ২/৩৪

ফলাফল: ইংল্যান্ড ৫ উইকেটে জয়ী।

ইংল্যান্ডের একাদশ : জনি বেয়ারস্টো, টম ব্যান্টন,ডেভিড মালান, ইয়োন মরগান (অধিনায়ক), মঈন আলী, স্যাম বিলিংস, টম কারান, লুইস গ্রেগরি, ক্রিস জর্ডান, সাকিব মাহমুদ, আদিল রশিদ।

পাকিস্তানের একাদশ: বাবর আজম (অধিনায়ক), ফখর জামান, মোহাম্মদ হাফিজ, শোয়েব মালিক, ইফতিখার আহমেদ, মোহাম্মদ রিজওয়ান, শাদাব খান, ইমাদ ওয়াসিম, শাহিন শাহ আফ্রিদি,মোহাম্মদ আমির, হারিস রউফ।