হারিয়ে যাওয়া বৃদ্ধকে পরিবারের কাছে ফিরিয়ে দিলেন মিমি চক্রবর্তী

হারিয়ে যাওয়া অসহায় বৃদ্ধকে তার পরিবারের কাছে ফিরিয়ে দিলেন কলকাতার অভিনেত্রী এবং সাংসদ মিমি চক্রবর্তী। হারিয়ে যাওয়া সদস্যকে ফিরে পেয়ে আনন্দে আত্মহারা রাণাঘাটের গাঙনাপুরের শীল পরিবার। কলকাতা পুলিশ ও সাংসদ অভিনেত্রীকে ধন্যবাদ জানাতে ভুললেন না কুমোদ শীলের ভাইয়ের ছেলে ও তার নাতি সৌরভ শীল। সাংসদ অভিনেত্রীর সঙ্গে ভি’ডিও কলে কথাও বললেন কুমোদ বাবুর ভাইপো।

গত ২২অগস্ট আরাধনা চট্টোপাধ্যায়ের একটি ফেসবুক পো’স্ট নজরে পড়ে সাংসদ অভিনেত্রী মিমি চক্রবর্তীর। আরাধনা চট্টোপাধ্যায় ও জয়দীপ সেন নামে দুই ব্যক্তি শেক্সপীয়র সরণিতে এক অসুস্থ বৃদ্ধকে বেঞ্চের উপর পড়ে থাকতে দেখেন। তারা দেখেন বৃদ্ধের পায়ে গ্যাংরিন হয়ে গিয়েছে। তার পায়ে সংক্র’মণ এতটাই বেশি যে উঠে দাঁড়ানোর ক্ষমতাও ছিল না।

পরে বৃদ্ধকে অবিলম্বে চি’কিৎসার জন্য হাসপাতালে নেয়া হয়। সঙ্গে সঙ্গেই বিভিন্ন হাসপাতাল ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সঙ্গে যোগাযোগ করার চে’ষ্টাও করেন আরাধনা-জয়দীপ। বর্তমান করোনাভাই’রাসের কারণে কোনো চিকিৎসকই বৃদ্ধকে সাহায্য করার জন্য সেখানে যাননি। পরে কোন উপায় না পেয়ে সোশ্যাল মি’ডিয়ায় বিষয়টি পো’স্ট করেন আরাধনা ও জয়দীপ।

তাদের সেই পোস্ট চোখে পড়তেই বৃদ্ধকে সাহায্যের জন্য এগিয়ে আসেন মিমি চক্রবর্তী। কলকাতা পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করে ওই অসুস্থ বৃদ্ধকে শম্ভুনাথ প’ণ্ডিত হাসপাতালে ভর্তির ব্যবস্থা করেন তিনি। আর এরপরই উদ্যোগ নিয়ে কুমোদ শীলকে তার পরিবারের সঙ্গে দেখা করিয়ে দেন মিমি চক্রবর্তী।