কপাল খুলছে তাসকিন-মুস্তাফিজের, শ্রীলংকার বিপক্ষে তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজে সুযোগ পেতে যাচ্ছেন

সামনেই বাংলাদেশের গুরুত্বপূর্ণ একটি টেস্ট সিরিজ। আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের মিশনে এবার বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ শ্রীলঙ্কা। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে ২৩ সেপ্টেম্বর ৩ ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলতে শ্রীলংকার উদ্দেশ্যে ঢাকা ত্যাগ করবে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দল। সেখানে বাংলাদেশ এইচপি এবং বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের মধ্যকার তিনটি প্রস্তুতি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে।

এই ম্যাচের ফলাফলের উপর ভিত্তি করে চূড়ান্ত দল ঘোষণা করা হবে। তবে তার আগে একটি প্রাথমিক দল ঘোষণা করবে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড। সেই স্কোয়াডে থাকছেন পাঁচজন ফাস্ট বোলার। সচরাচর টেস্ট ক্রিকেটে বেশি বোলার নিয়ে খেলতে দেখা যায়না বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলকে।

তবে এবার ফাস্ট বোলিং এর দিকে একটু বেশি নজর দিচ্ছে বিসিবি। বাংলাদেশ টেস্ট ক্রিকেটের ফাস্ট বোলিং ডিপার্টমেন্টে নিয়মিত মুখ আবু জাহেদ চৌধুরী রাহি। টেস্ট ক্রিকেটে বর্তমান সময়ে তিনি একমাত্র ধারাবাহিক ফাস্ট বোলার। তাই তার দলে থাকা একপ্রকার নিশ্চিত।

টেস্ট ক্রিকেটের জন্য বাংলাদেশের স্পেশালিস্ট বোলার হিসেবে শ্রীলঙ্কা সিরিজের যাচ্ছেন এবাদত হোসেন। মূলত গতির কারণ এই শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে আবারও সুযোগ পাচ্ছেন তিনি। তবে শ্রীলঙ্কা সিরিজের সবচেয়ে বড় চমক হতে পারে হাসান মাহমুদ। ঘরোয়া ক্রিকেট লিগের দুর্দান্ত পারফরম্যান্স করা এই ফাস্ট বোলারকে দেখা যেতে পারে শ্রীলংকার বিপক্ষে তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজের প্রাথমিক স্কোয়াডে।

তবে এবার কপাল খুলছে তাসকিন আহমেদ এবং মুস্তাফিজুর রহমানের। সর্বশেষ দুই বছর আগে বাংলাদেশ টেস্ট দলের হয়ে মাঠে নেমেছিলেন তাসকিন আহমেদ। তালিকায় শেষ ফাস্ট বোলার মোস্তাফিজুর রহমান। মূলত শ্রীলংকার উইকেট বিবেচনা করেই মোস্তাফিজুর রহমানকে দলে রাখা হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।