বাংলাদেশে রুশ ভ্যক্সিন উৎপাদনের সম্ভাবনার কথা জানালেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী

রাশিয়া বলছে, বাংলাদেশের যদি সক্ষ’মতা থাকে তাহলে দেশটিকে তাদের আবি’ষ্কৃত কোভিড-১৯ ভ্যা’কসিন উৎপাদনের অনুমতি দেবে। ওদিকে বাংলাদেশ বলছে, তাদের এই সক্ষ’মতা আছে। যদিও রাশিয়া যে করোনাভাই’রাস ভ্যাক’সিনে সাফল্য পাওয়ার কথা বলছে সেটার প্রক্রিয়া নিয়ে প্রশ্ন আছে, কিন্তু স্বা’স্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক আজ এক সংবাদ সম্মেলনে জানান, বাংলাদেশে রুশ ভ্যাকসিন উৎপাদনের সম্ভাব্যতা নিয়ে দ্বিপা’ক্ষিক পর্যায়ে কিছু আলোচনা ও চিঠি চালাচালির খবর।

মি. মালেক বলেন, সক্ষ’মতার প্রশ্নটি নিয়ে এরই মধ্যে বাংলাদেশকে চিঠি দিয়েছে রাশিয়া। এ নিয়ে ঢাকায় দেশটির রাষ্ট্রদূতের সাথে বাংলাদেশের সরকারের কথাবার্তাও হয়েছে। সেই আলোচনায় রাশিয়াকে বাংলাদেশের সক্ষ’মতা থাকার বিষয়টি জানিয়েও দেয়া হয়েছে।স্বা’স্থ্যমন্ত্রী বলেন, দেশের বেশ কয়েকটি কোম্পানির টিকা উৎপাদনের সক্ষ’মতা রয়েছে।এছাড়া অক্সফোর্ডের ভ্যাকসিন দেয়ার প্রতিশ্রুতি বাংলাদেশ পেয়েছে।

এই ভ্যাকসিন ভারতের সেরাম কোম্পানি উৎপাদন করছে। বেক্সিমকো কোম্পানি এই ভ্যাকসিন বাংলাদেশে সরবরাহের ব্যবস্থা নেবে। করোনাভাই’রাসের বিষয়ে দক্ষিণ কোরিয়ার সাথেও সরকারিভাবে আলোচনা হয়েছে। স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, “করোনা পরিস্থিতিতে তারা তাদের অভি’জ্ঞতা আমাদের সাথে বিনিময় করতে চায়।” “অ্যা’ন্টিজেন পরীক্ষার জন্য তারা ৮ লাখ ডলার মূল্যের কিট বাংলাদেশে দেবে। আর এটা অল্প দিনের মধ্যে আমাদের হাতে চলে আসবে।”

কিট আনার প্রস্তুতি এরইমধ্যে শুরু হয়ে গেছে বলেও জানান স্বাস্থ্যমন্ত্রী। এছাড়া করোনা সংক্র’মণ পরীক্ষার জন্য বেশ কয়েকটি পিসিআর মেশিনও দেয়ার কথা জানিয়েছে দক্ষিণ কোরিয়া।

সূত্র: বিবিসি বাংলা।