সচিনের ব্যাট দিয়েই ৩৭ বলে সেঞ্চুরি করেছিলেন আফ্রিদি

সকালের সূর্য দেখেই নাকি বোঝা যায় দিনটা কেমন যাবে। ঠিক ক্রিকেটের বেলায়ও শহিদ আফ্রিদি এমন আভাস দিয়েছিলেন। ক্যারিয়ারের শুরুতেই নিজেকে চিনিয়েছিলেন অনন্য এক রেকর্ড গড়ে। ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় একদিনের আন্তর্জাতিক ম্যাচে অসাধ্য সাধন করেছিলেন পাকিস্তানের এই হার্ড হিটার ব্যাটসম্যান। অভিষেক হয়েছিল শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে।

আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারে প্রথমবারের মতো ব্যাটিং করতে নেমেই বিশ্বরেকর্ড গড়েছিলেন পাকিস্তান ক্রিকেট দলের সাবেক অলরাউন্ডার শহিদ আফ্রিদি। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে মাত্র ৩৭ বলে সেঞ্চুরি করেছিলেন আফ্রিদি। যা প্রায় ১৮ বছর ধরে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে দ্রুততম সেঞ্চুরির রেকর্ড ছিল। অভিষেক ম্যাচে ব্যাটিং করার সুযোগ পাননি। তবে দ্বিতীয় ম্যাচে সুযোগ পেয়েই বাজিমাত করেন এই পাকিস্তানি ব্যাটসম্যান। খেলেন ৪০ বলে ৬ চার ও ১১ ছক্কায় ১০২ রানের টর্নেডো ইনিংস।

সেঞ্চুরি খবর পুরনো। এমন অহরহ অনেক সেঞ্চুরিই করেছেন আফ্রিদি। কিন্তু মজার খবর হলো, যে ব্যাট দিয়ে ক্যারিয়ারে প্রথম সেঞ্চুরি করে রেকর্ডের খাতায় নাম লিখিয়েছেন সেটি তার নিজের ছিলো না। সেই ব্যাটটি ছিলো শচীন টেন্ডুলকারের। সতীর্থ ওয়াকার ইউনিসের কাছ থেকে চেয়ে নিয়েছিলেন ব্যাটটি। ওয়াকারের ব্যাট দিয়েই রেকর্ডগড়া সেঞ্চুরি করেছিলেন আফ্রিদি। পাকিস্তানের সাবেক পেস বোলিং অলরাউন্ডার আজহার মাহমুদ এবার নতুন তথ্য দিয়েছেন। সেই ব্যাটটির প্রাথমিক মালিক ওয়াকার ছিলেন না।

উপহার পেয়েছিলেন ভারতের কিংবদন্তী ব্যাটসম্যান শচীন টেন্ডুলকারের কাছ থেকে। সেটা দিয়েই ৩৭ বলে সেঞ্চুরি করে আলোড়ন সৃষ্টি করেন ১৬ বছর বয়সী আফ্রিদি। আজহার মাহমুদ বলেন, ‘১৯৯৬ সালে সাহারা কাপের পর নাইরোবিতে শহিদ আফ্রিদির অভিষেক হয়। সেখানে আমারও অভিষেক।

সেই টুর্নামেন্টের আগে মুশতাক আহমেদ ইনজুরিতে পড়ে। ফলে মুশতাকের বদলে ওকে দলে নেয়া হয়েছিল।’ ২০১৪ সালে নিউজিল্যান্ডের কোরি অ্যান্ডারসন আফ্রিদির এই রেকর্ড ভেঙেছিলেন।