দ’গ্ধ ভাইয়ের জন্য হাসপাতালের গ্রিল জড়িয়ে কাঁদছেন ছোটবোন

নারায়ণগঞ্জে মসজিদে এসি বি’স্ফোর’ণের ঘ’টনায় অ’গ্নিদ’গ্ধ হওয়া ভ্যানচালক নিজামের ছোট বোন লাইজু আক্তার অঝোরে কাঁদছেন শেখ হাসিনা বার্ন অ্যান্ড প্লা’স্টিক সা’র্জারি ইনস্টিটিউট ভবনের গ্রিল ধরে। হাসপাতালের ভিতর অতিরিক্ত মানুষ ঢুকতে না দেয়ায় ঢুকতে পারেননি তিনি।

লাইজু আক্তার বলেন, তার ভাই নিজাম ও তাদের পৈতৃক বাড়ি বরিশাল রাঙ্গাবালী উপজেলায়। জীবিকার তাগিদে নারায়ণগঞ্জেই পরিবারসহ বসবাস করেন তারা। তার বড় ভাই নিজাম পোশায় একজন ভ্যান চালক ছিলেন। শুক্রবার রাতে বাসার পাশে মসজিদে এশার নামাজ পড়তে যান তিনি। ফরজ নামাজ শেষে মুসল্লিরা যখন সুন্নত নামাজ পড়তেছিল ঠিক তখনই এসি বি’স্ফো’রণের ঘটনা ঘটে। যদিও এর আগেই অনেক মুসল্লি নামাজ শেষ করে বাইরে বের হয়ে গিয়েছিল।

লাইফ আরো জানান, নিজাম তিন সন্তান রয়েছে। বড় মেয়ে নবম শ্রেণীর শিক্ষার্থী, ছোট মেয়ে চতুর্থ শ্রেণীর শিক্ষার্থী ও সর্বশেষ সন্তানের বয়স মাত্র দুই বছর। তিনি ছাড়া পরিবারটি একদম নিঃস্ব হয়ে যাবে।

অঝোরে কান্নাভরা কণ্ঠে তিনি আরো বলেন, ‘মোর ভাইয়ের বা মোগো চিকিৎসা করার কোন সমর্থ নাই। আল্লাহ এমন বিপদ মোগো কেনো দিলো?’ এসময় চিকিৎসার জন্য তিনি প্রধানমন্ত্রীর সহযোগিতা কামনা করেন।