সাকিবের অধিনায়কের দায়িত্ব পাওয়া নিয়ে ভারতীয় সংবাদমাধ্যমকে যা বললেন আকরাম খান

ক্রিকেট মাঠে ফেরার প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। গতকাল শনিবার সকাল সাড়ে ৭টা থেকে ছেলেবেলার কোচ মোহাম্মদ সালাউদ্দিনের অধীনে অনুশীলন শুরু করেছেন সাকিব। সালাউদ্দিন ছাড়াও সাকিবের ট্রেনিং প্রোগ্রামের তত্ত্বাবধানে আছেন তার ছোটবেলার আরেক কোচ নাজমুল আবেদীন ফাহিম।

সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে আগামী ২৯ অক্টোবর থেকে সকল ধরনের ক্রিকেট ম্যাচ খেলতে পারবেন সাকিব আল হাসান। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড সহ বাংলাদেশের সকল ক্রিকেটপ্রেমীরা চাচ্ছেন ২৯ অক্টোবর থেকে বাংলাদেশের জাতীয় দলে যোগ দিক সাকিব আল হাসান।

মূলত সেই লক্ষ্য নিয়েই কঠোর অনুশীলনের নেমে পড়েছেন শাকিব। ধারণা করা হচ্ছে শ্রীলংকার বিপক্ষে দ্বিতীয় টেস্ট ম্যাচ থেকেই একাদশে দেখা যেতে পারে সাকিব আল হাসানকে। তবে দ্বিতীয় টেস্ট ম্যাচ খেলতে না পারলেও তৃতীয় টেস্ট ম্যাচে বাংলাদেশের একাদশে সাকিব আল হাসান নিশ্চিত।

নিষে’ধাজ্ঞার আগে বাংলাদেশ টেস্ট এবং টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়ক ছিলেন সাকিব আল হাসান। সাকিবের পরিবর্তে ওই সময় বাংলাদেশ টেস্ট দলের দায়িত্ব দেয়া হয় টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান মমিনুল হককে এবং বাংলাদেশ টি-টোয়েন্টি দলের দায়িত্ব পান মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ।

তবে এখন অনেকের মনে প্রশ্ন জেগেছে সাকিব দলে ফিরলেন অধিনায়কত্বের কি হবে? আবারও কি বাংলাদেশ টেস্ট দলের অধিনায়কের দায়িত্ব পাচ্ছেন সাকিব? বাংলাদেশ টেস্ট দলের দায়িত্ব আবারো পেতে পারেন সাকিব, কিন্তু এখন নয়।

এ বিষয়ে গতকাল শনিবার বিসিবির ক্রিকেট অপারেশনস কমিটির চেয়ারম্যান আকরাম খান এক ভারতীয় গণমাধ্যমকে বলেন, ‘এখনই অধিনায়কত্ব বদলানোর কোনো ভাবনা নেই। মুমিনুল আছে, সেই থাকবে। নেতৃত্বে পরিবর্তনের কোনো সিদ্ধান্ত এখনও হয়নি।’