মেসিকে একটা ধন্যবাদও দেয়নি বার্সা

একবুক ক’ষ্ট মনের চেপে রেখে বার্সেলোনা ছাড়তে চেয়েছিলেন লিওনেল মেসি। সেই ক’ষ্ট জমিয়ে রেখেই আরও এক মৌসুম বার্সাতেই থেকে যেতে হচ্ছে মেসির। কিছু ক্ষো’ভ অবশ্য বার্সেলোনা প্রেসিডেন্ট বার্তামেউয়ের ওপর উগরে দিয়েছেন লিও। কিন্তু দিন শেষে তার ক্যাম্প ন্যুতে থেকে যাওয়ার সিদ্ধান্তই বড়।

মেসি বার্সাতে থেকে যাওয়ায় ভক্তরা তাই উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন। কিন্তু বার্সেলোনার বোর্ড কিংবা কোচিং স্টাফদের তা নিয়ে কোন হেলদোল নেই। মেসিকে জোর করে ধরে রাখতে পারলেও ‘জয় উদযাপন’ বার্সার কর্মকর্তারা করতে পারছেন না।

তাই বলে বোর্ডের কেউ মেসিকে একটা ধন্যবাদ পর্যন্ত দিতে পারলো না? জানাতে পারতো না নতুন মৌসুমের জন্য শুভকামনা? বার্সার প্রেসিডেন্ট-পরিচালকরা থেকে শুরু করে কোচিং স্টাফরাও নিরব! সোমবার বার্সার অনুশীলনে ফেরার কথা মেসির। তা নিয়েও তাদের কোন কথা নেই।

এমনকি মেসি বার্সায় থেকে যাওয়া নিয়ে তার বিশাল যে বিবৃতি দিয়েছেন। সংবাদ মাধ্যম গোলের কাছে মনের মধ্যে জমে থাকা যে কথাগুলো মেসি বলেছেন, সেটার গুরুত্বপূর্ণ অংশ বাদ দিয়ে শুধু ইতিবাচক অংশটুকু সামাজিক মাধ্যমে তুলে ধরেছে বার্সা। সেখানেও মেসিকে একটা শুভেচ্ছা জানাতে পারেনি বার্সা।

মেসি সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন, বার্তামেউ কথা রাখেননি। মেসি বছর জুড়ে বার্সা ছাড়ার কথা জানিয়ে এসেছেন। প্রেসিডেন্ট বলেছেন, ইচ্ছা করলেই মেসি ক্লাব ছাড়তে পারবে। অথচ শেষ পর্যন্ত মেসির ওপর বার্সার বোর্ড চাপিয়েছে ৭০০ মিলিয়নের রিলিজ ক্লজ। যেটা কোন ক্লাবের পক্ষে দেওয়া অসম্ভব।

কিন্তু বার্সার সামাজিক মাধ্যমে উল্লেখ করা অংশটুকু হলো, আমি বার্সাতে আমার সবটাই দিয়েছি। বার্সা আমার হৃদয়ের ক্লাব। বার্সার প্রতি আমার ভালোবাসা কখনো বদলাবে না। বোঝা যায়, মেসির এবং বার্সা বোর্ডের মধ্যে তৈরি হয়েছে একটা বিশাল দূরত্ব। দুই পক্ষের মনে জমে আছে ক্ষোভের কালো মেঘ। এমন ‘অস্বস্তির’ পরিবেশে মেসি মেরুন রংয়ের জার্সিতে সেরাটা দিতে পারবেন তো?