অনুমোদন ছাড়াই তৈরি হয়েছে মসজিদটি

কোনো অনুমোদন ছাড়াই তৈরি হয়েছে নারায়ণগঞ্জের তল্লার মসজিদ ভবনটি। ব্যবহার উপযোগী ছাড়পত্রও নেয়া হয়নি বলে জানিয়েছে ফায়ার সার্ভিস। এছাড়া, ডিপিডিসি বলছে, দু’র্ঘটনার সময় মসজিদটিতে এসি চলছিল অ’বৈধ বিদ্যুৎ লাইন থেকে। সেখানে দুটি মিটারেরও অস্তিত্ব পাওয়া যায়নি। শুক্রবার রাত ৮টা ১৭ মিনিটে বৈদ্যুতিক লাইন সংস্কারের জন্য পশ্চিম তল্লা এলাকার বিদ্যুৎ সংযোগ বন্ধ ছিল।

অথচ এশার নামাজের সময় মসজিদটিতে আলো জ্ব’লছিল, এসিও চলছিল। ডিপিডিসি বলছে, সেটা অবৈ’ধ লাইনের মাধ্যমে চালানো হয়েছে। ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক নূর হাসান জানান, ডিপিডিসি রাত সাড়ে ৮টায় পশ্চিম তল্লা এলাকায় বিদ্যুৎ সরবরাহ। তখন মসজিদের মুয়াজ্জিন লাইন পরিবর্তন করতে গেলে তিতাসের লিকেজ গ্যাসভর্তি রুমে বিস্ফোরণ হয়।

তবে মসজিদ কমিটির সভাপতির আব্দুল গফুরের দাবি, দ্বিতীয় লাইনটিরও মৌখিক অনুমতি নেয়া হয়েছে। দুটি লাইনের জন্য ছিল দুটি মিটার। তবে মসজিদের ভেতরে একটি মিটার পেয়েছে তদন্ত দল। তারা বলছে, অবৈধ যে লাইনটি টানা হয়েছে সেটা ছিল ত্রু’টিপূর্ণ।

এদিকে, ফায়ার সার্ভিসের তদন্ত বলছে, মসজিদ ভবনটি অপরিকল্পিতভাবে তৈরি। কারো কাছ থেকে কোনো অনুমতিও নেয়া হয়নি। এই দুর্ঘ’টনায় বৈদ্যুতিক ত্রুটি ও তিতাসের গ্যাস লাইন লিকেজকে সামনে রেখে তদন্ত করে যাচ্ছে ৪টি কমিটি। মসজিদে বি’স্ফো’রণে দ’গ্ধ ৩৭ জনের মধ্যে ২৬ জনের মৃ’ত্যু হয়েছে। বাকি ১১ জনের মধ্যে ৪ জনের অবস্থাও সংক’টাপন্ন।-ইন্ডিপেন্ডেন্ট নিউজ