যে তিন তরুণ ফুটবলারকে নিয়ে নতুন করে স্বপ্ন দেখতে পারে মেসি

এ মাঠে কখনো খেলার কথা ছিল না আনসু ফাতির। সেই কৈশোর থেকে যার গায়ে বার্সেলোনার জার্সি, তাঁর পক্ষে সর্বোচ্চ সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে প্রতিপক্ষ হিসেবে খেলার কথা। রিয়ালের অনুশীলন মাঠে কেনই-বা খেলবেন বার্সার ফাতি! কিন্তু ভাগ্যে থাকলে ঠেকায় কে?

স্পেনের জার্সিতে কাল ইতিহাসটা আলফ্রেডো ডি স্টেফানো স্টেডিয়ামেই হলো। কাল দল হিসেবে ইউক্রেনকে ৪-০ গোলে উড়িয়ে দেওয়ার পথে ব্যক্তিগত এক অনন্য অর্জন হয়ে গেল ফাতির। এই ফরোয়ার্ডের চেয়ে কম বয়সে কেউ গোল করেননি স্পেনের হয়ে।জার্মানির বিপক্ষে গত ম্যাচেই রেকর্ডটা হয়ে যেতে পারত ফাতির।

কিন্তু হেডে করা তাঁর দারুণ গোলটা বাতিল হয়ে যায় সার্জিও রামোসের ফাউলে। কাল আর তেমন কোনো ঝামেলা হয়নি। সার্জিও রেগিলনের কাছ থেকে বল পেয়ে যে শট নিয়েছেন তার আগে পরে কোনো ধরনের ফাউল হয়নি। ফলে ১৭ বছর ৩১১ দিন বয়সেই স্পেনের হয়ে গোল করার রেকর্ডটা হয়ে গেল। এত দিন এ রেকর্ডটা ছিল হুয়ান এরাজকিনের। এই স্ট্রাইকার ১৮ বছর ৩৪৪ দিন বয়সে স্পেনের হয়ে গোল করেছিলেন।

ম্যাচ শেষে আনসু ফাতির প্রশংসা করে সার্জিও রামোস বলেন, ‘আমি আনসুকে অভিনন্দন জানাই। খুবই তরুণ একজন ফুটবলার সে। কিন্তু এই বয়সেই আমাদেরকে চমৎকার সার্ভিস দিয়েছে সে। দল যা চায়, সে সেটাই করতে পারছে। তরুণ প্রজন্ম থেকে এভাবে ফুটবলার উঠে আসা আমাদের জন্য অনেক বড় একটি সম্ভাবনা। তার মত একজন খেলোয়াড় পেয়ে আমরা সত্যিই অভিভূত।’

সার্জিও রামোস এখন অভিভূত হলেও আনসু ফাতির প্রতিভা সবার আগেই টের পেয়েছিল স্প্যানিশ ক্লাব বার্সেলোনা। মাত্র মাত্র ১৬ বছর বয়সেই আনসু ফাতিকে দলে ভেড়ায় বার্সেলোনা। স্প্যানিশ লা লিগায় খেলানো হয়েছে তাকে। বার্সার হয়ে প্রায় একটি বছর পার করে ফেলেছেন আনসু ফাতি। দিনে দিনে নিজেকে আরও উচ্চতর শিখরেই নিয়ে যাচ্ছে বার্সার এই তরুণ স্ট্রাইকার।

এদিকে বিশ্লেষকরা বলছেন, ফাতির এমন পারফরম্যান্স দেখে খুশি হবেন লিওনেল মেসি। কেননা বার্সায় ভালো খেলোয়াড়ের অভাব আর এর ভবিষ্যৎ অন্ধকার ভেবে ক্লাব ছাড়তে চেয়েছিলেন মেসি। তিনি বলেছিলেন, আমি চ্যাম্পিয়নস লিগ জিততে চাই। যা বার্সার বর্তমান পারফরম্যাস্ সম্ভব নয়।

কিন্তু বার্সার এই তরুণ তুর্কির পারফরম্যান্সে কিছুটা নির্ভার হতে পারেন মেসি। গত মৌসুম থেকেই আলো ছড়াচ্ছেন ফাতি। আরও দুই তরুণ তুর্কি ত্রিনকাও ও পেদ্রিকে নিয়ে বার্সার গৌরব ফিরিয়ে আনতে নতুন করে স্বপ্ন দেখতে পারেন মেসি।