‘এটা হতে পারতো সাকিবের আইপিএল’

আইসিসির দেয়া নিষেধাজ্ঞার কারণে এবারের আইপিএল মিস করবেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। এই আফসোস শুধু বাংলাদেশি ভক্ত-সমর্থকদের নয়। তাকে নিয়ে আফসোস সবারই। ভারতের জনপ্রিয় ধারাভাষ্যকার ও ক্রিকেট বিশ্লেষক হার্শা ভোগলে দ্বিধা না রেখেই বলেলেন, ‘সাকিব থাকলে এবারের আইপিএলে পরিষ্কার ফেবারিট হতো সানরাইজার্স হায়দরাবাদই।’

২০১৬ সালে সানরাইজার্স হায়দরাবাদের শিরোপা জয়ে বড় অবদান ছিল সাকিবের। কিন্তু পরে আফগান লেগস্পিনার রশিদ খানের দাপটে ধীরে ধীরে দলে অনিয়মিত হয়ে পড়েন টাইগার অলরাউন্ডার। গত আইপিএলে সুযোগ পান মাত্র ৩টি ম্যাচে। কিন্তু উপেক্ষার জবাবটা সাকিব দিয়েছেন বিশ্বমঞ্চে। আইপিএলে সব ম্যাচে মাঠে নামতে না পারলেও ওই সময়টায় নিজেকে দারুণভাবে ঝালিয়ে নেন তিনি। ২০১৯ বিশ্বকাপে ব্যাটে-বলে গড়েন রেকর্ড।

বিশ্বকাপের মতো বড় আসরে ৬০৬ রানের সঙ্গে ১১ উইকেট নেন সাকিব। কোনো খেলোয়াড় বিশ্বকাপে এর আগে একসঙ্গে ৫০০-এর বেশি রান এবং ১০ বা তার বেশি উইকেট নিতে পারেননি। এই সাকিব যদি সংযুক্ত আরব আমিরাতের উইকেটে সানরাইজার্স হায়দরাবাদের হয়ে এবার খেলতেন, তবে টুর্নামেন্টটা তারই হতো বলে মনে করেন হার্শা ভোগলে। সেই সঙ্গে সানরাইজার্সও শিরোপা জয়ের বড় দাবিদার হতো।

এক ভিডিও পডকাস্টে জনপ্রিয় এই ধারাভাষ্যকার বলেন, ‘এই দলটিতে এমনিতেই উঁচুমানের বেশ কয়েকজন দারুণ খেলোয়াড় আছে। ভুবনেশ্বর কুমার, রশিদ খানের মতো ভালো বোলার আছে তাদের। তারা এই টুর্নামেন্টের অন্যতম ফেবারিট।’ হার্শা ভোগলে যোগ করেন, ‘আমার মনে হয় এই আইপিএলটা সাকিবের আইপিএল হতে পারতো। যখন ভারতে খেলা হয়েছে, সে হয়তো টিম কম্বিনেশনের জন্য খুব বেশি সুযোগ পায়নি।

ভাবুন সাকিব তিন নম্বরে খেলছেন, সঙ্গে আবার চার ওভার বোলিং। আমার মনে হয় এই দলটি তখন শিরোপা জয়ের দাবিদারই হয়ে যেত।’