‘করোনাযু’দ্ধ জেতার পর অর্থনীতি চাঙ্গা করতেও বিশ্বকে নেতৃত্ব দিচ্ছে চীন’

চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের দাবি, কোভিড-১৯ অতিমারির বিরু’দ্ধে যু’দ্ধে জয়ী হয়েছে তার দেশ। মঙ্গলবার, চীনের করোনা যো’দ্ধাদের রাষ্ট্রীয় সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, ”করোনা ভাই’রাসের মোকাবিলায় অসাধারণ ও ঐতিহাসিক পরীক্ষায় আমরা সসম্মানে উত্তীর্ণ হয়েছি।”

করোনাভাই’রাসের উৎপত্তিস্থল চীন যে ভাবে অতিমারির মোকাবিলা করেছে, তা বিশ্বজুড়ে দৃষ্টান্ত বলে সে দেশের সরকারের দাবি। গতকাল বেজিংয়ের গ্রেট হল অফ দ্য পিপল-এ আয়োজিত অনুষ্ঠানে কোভিড-১৯ পরিস্থিতি মোকাবিলায় কৃতিত্বের নজির স্থাপন করা চার জন চিকিৎসাকর্মীকে ‘দ্য পিপলস হিরো’ স্বর্ণপদক দিয়ে সম্মাননা জানান শি চিনফিং।

তিনি বলেন, ”আমরা এখন অর্থনীতির পুনরুজ্জীবন এবং করোনা ভাই’রাসের বিরু’দ্ধে লড়াইয়ে বিশ্বকে নেতৃত্ব দিচ্ছি।” অনুষ্ঠান শুরুর আগে করোনায় মৃ’তদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে নিরবতা পালন করেন জিনপিংসহ উপস্থিত সকলে। নি’উমোনিয়ার মতো শ্বা’সজনিত রোগ সৃষ্টিকারী ভাই’রাসটি প্রথম ধরা পড়ে গত ডিসেম্বরে, চীনের উহান শহরে।

তাই প্রথমে একে ‘উহান ভাই’রাস’ নামে চিহ্নিত করেছিলেন চিকিৎসকদের অনেকেই। পাশাপাশি, কমিউনিস্ট পার্টি পরিচালিত একদলীয় চীনে ‘সরকারি উদ্যোগে’ করোনা ভাই’রাস সৃষ্টি হয়েছে বলেও অভিযোগ ওঠে বিশ্বজুড়ে। যদিও চীন বরাবরই সেই অভিযোগ খারিজ করে এসেছে। সরকারি ভাবে চীনে কোভিড-১৯-এ মৃ’তের সংখ্যা ৪,৬৩৪ হলেও কমিউনিস্ট পার্টি পরিচালিত চীন সরকার তথ্য গো’পন করছে বলেও অভিযোগ উঠেছে।