‘ছেলে ধরা’ সন্দেহে গণপিটু’নিতে হ’ত্যা মা’মলার অভিযোগপত্র দাখিল

রাজধানীর উত্তর বাড্ডায় ছেলেধ’রা সন্দেহে তাসলিমা বেগম রেনু নামে এক নারীকে গণপিটু’নিতে হ’ত্যা মাম’লায় ১৫ জনের বিরু’দ্ধে চা’র্জশিট দিয়েছে গোয়ে’ন্দা পুলিশ।বৃহস্পতিবার (১০ সেপ্টেম্বর) ঢাকার সিএমএম কো’র্টে এ চার্জশিট দাখিল করেন মাম’লার তদন্ত কর্মকর্তা আব্দুল হক।

১৫ আসা’মির মধ্যে মহিন উদ্দিন পলাত’ক থাকায় তার বিরু’দ্ধে গ্রেফ’তারি পরোয়া’না জারির আবেদন করা হয়েছে। আসামি জাফর হোসেন পাটোয়ারী ও ওয়াসিম আহমেদ অপ্রাপ্তব’য়স্ক হওয়ায় তাদের বিরু’দ্ধে দো’ষীপত্র দেয়া হয়েছে। আলিফ, মারুফ, সুমন ও আকলিমা এই চারজনের বিরু’দ্ধে অভিযোগ না পাওয়ায় তদন্ত কর্মকর্তা তাদের অব্যা’হতির আবেদন করেছেন।

বিজ্ঞ আদা’লতে প্রেরিত অভিযোগপত্রে গ্রেফ’তারকৃত অভিযুক্তরা হলো- ১। মোঃ ইব্রাহিম ওরফে হৃদয় হোসেন মোল্লা (২০), ২। মোছাঃ রিয়া বেগম ওরফে ময়না বেগম (২৯), ৩। মোঃ আবুল কালাম আজাদ ওরফে আজাদ মন্ডল (৫০), ৪। মোঃ কামাল হোসেন (৪০), ০৫। মোঃ শাহিন (৩২), ৬। মোঃ বাচ্চু মিয়া (৩৬), ৭। মোঃ বাপ্পী ওরফে শহিদুল ইসলাম (২১), ৮। মোঃ মুরাদ মিয়া (২৬), ৯। মোঃ সোহেল রানা (৩০), ১০। আসাদুল ইসলাম(২২), ১১। মোঃ বিল্লাল মোল্লা (৩২) ও ১২। মোঃ রাজু ওরফে রুম্মান হোসেন (২৩)।

২০১৯ সালের ২০ জুলাই উত্তর বাড্ডায় ছেলেধরা সন্দেহে তাসলিমা বেগম রেনুকে পি’টিয়ে আ’হত করে বিক্ষু’ব্ধ জনতা। গুরু’তর আহ’ত অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃ’ত ঘোষণা করেন। এ ঘটনায় বাড্ডা থা’নায় অজ্ঞা’তনামা ৪০০ থেকে ৫০০ জন ব্যক্তির বিরু’দ্ধে হ’ত্যা মা’মলা করেন রেনুর ভাগ্নে নাসির উদ্দিন।

মহাখালীতে চার বছরের মেয়েকে নিয়ে থাকতেন রেনু। বছর দুই আগে স্বামীর সঙ্গে বি’চ্ছেদ হয় তার। ১১ বছরের একটি ছেলেও রয়েছে রেনুর।

সূত্র: সময় নিউজ।