২২৯ রান: আইপিএল ইতিহাসের সেরা জুটি

একবারও আইপিএল জিততে পারেন রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বাঙ্গালোর। তারকাখচিত দল নিয়েও বারবার ব্য’র্থ হতে হয়েছে। এবার তাই নতুন করে শুরু করতে চাইছেন আরসিবি অধিনায়ক বিরাট কোহলি। ১৯ সেপ্টেম্বর শুরু হচ্ছে আইপিএল। ইতিমধ্যেই অনুশীলন শুরু করে দিয়েছে দলগুলো। যত এগিয়ে আসছে টুর্নামেন্ট। তত বাড়ছে উ’ত্তেজনা। এই আবহে একবার দেখে নেওয়া যাক আইপিএলের সেরা জুটির তালিকা। যেখানে ট্রফি না জিতলেও আধিপত্য আরসিবির।

১.‌ বিরাট কোহলি ও এবিডি’‌ভিলিয়ার্স জুটি (‌২২৯ রান বনাম গুজরাট লায়ন্স)‌: আইপিএলের অন্যতম দুই সেরা ব্যাট। ২০১৬ সালে গুজরাট লায়ন্সের বিরু’দ্ধে দ্বিতীয় উইকেটের জুটিতে ২২৯ রান তুলেছিলেন কোহলি–এবিডি। বিরাট করেছিলেন ১০৯। আর এবিডি অপরাজিত ছিলেন ১২৯ রানে।

২.‌ বিরাট কোহলি ও এবিডি’‌ভিলিয়ার্স জুটি (‌অবিচ্ছিন্ন ২১৫ রান বনাম মুম্বই ইন্ডিয়ান্স)‌: ক্রিস গেইল দ্রুত আউট হয়ে গিয়েছিলেন। তারপরই উইকেটে জাঁকিয়ে বসেন বিরাট ও এবিডি। ২০১৫ সালের সেই ম্যাচে বিরাট করেছিলেন ৫০ বলে ৮২। আর ৫৯ বলে মারকাটারি ১৩৩ করেছিলেন এবিডি। দু’‌জনেই ছিলেন অপরাজিত।

৩.‌ অ্যাডাম গিলক্রিস্ট ও শন মার্শ জুটি (‌২০৬ রান বনাম আরসিবি)‌: দুই অসি তারকা তখন ছিলেন কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবে। ধর্মশালার মাঠে দ্বিতীয় উইকেটের জুটিতে ২০৬ রান তুলেছিলেন গিলক্রিস্ট ও শন মার্শ। অসি উইকেটকিপার করেছিলেন ১০৬। আর মার্শের ব্যাট থেকে এসেছিল ৭০।

৪.‌ ক্রিস গেইল ও বিরাট কোহলি জুটি (‌অবিচ্ছিন্ন ২০৪ রান বনাম দিল্লি ডেয়ারডেভিলস)‌: ফের আরসিবি। ফের বিরাট। ২০১২ সালের ওই ম্যাচে গেইল করেছিলেন ১২৮ রান। মেরেছিলেন ১৩টি ছয় ও ৭টি চার। উল্টোদিকে বিরাট কোহলির ব্যাট থেকে এসেছিল ৫৩ বলে ৭৩। অবিচ্ছিন্ন দ্বিতীয় উইকেটে দু’‌জনে যোগ করেছিলেন ২০৪।

৫.‌ ডেভিড ওয়ার্নার ও জনি বেয়ারস্টো জুটি (‌১৮৫ রান বনাম আরসিবি)‌: গতবার আইপিএলে আরসিবির বিরু’দ্ধে ওপেনিং জুটিতে ১৮৫ করেছিলেন ওয়ার্নার–বেয়ারস্টো। সানরাইজার্স হায়দরাবাদের দুই ব্যাটসম্যান গতবার প্রায় সব ম্যাচেই দলকে ভাল শুরু এনে দিয়েছিলেন। ওয়ার্নার ১২ ম্যাচে করেছিলেন ৬৯২। ছিলেন সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক। রাজীব গান্ধী আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে আরসিবির বোলারদের উপর নির্মম ছিলেন দুই ব্যাটসম্যানই। ম্যাচটিও জিতেছিল হায়দরাবাদ।