পেঁয়াজ আমদানি বন্ধ করে দিল ভারত

হঠাৎ পেঁয়াজ আমদানি বন্ধ করে দিয়েছে ভারত সরকার। আজ সোমবার সকাল থেকে এখনো কোনো পেঁয়াজের ট্রাক সাতক্ষীরার ভোমরা বন্দর দিয়ে প্রবেশ করেনি। তবে পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধের ব্যাপারে লিখিতভাবে কোনো কিছু জানানো হয়নি। সাতক্ষীরা ভোমরা বন্দরের সিএন্ডএফ এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান নাসিম জানান, হঠাৎ পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ করে দিয়েছে ভারত। সকাল থেকেই কোনো পেঁয়াজের ট্রাক প্রবেশ করেনি।

বন্ধের কারণ হিসেবে তিনি বলেন, ‘ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানি করতে গেলে দাম নির্ধারণ করে দেয় ন্যাপেট নামের একটি সংস্থা। বর্তমানে এক টন পেয়াজের মূল্য ছিল ৩০০ ডলার। সেটি সম্ভবত বাড়িয়ে ৫০০ বা ৭০০ ডলার নির্ধারণ করবে। সে কারণে পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ করে দিয়েছে ভারত। তা ছাড়া বর্তমানে যে রেটে ভারতীয় রপ্তানীকারকরা পেঁয়াজ রপ্তানি করছে সেটিতে তাদের লোকসান হচ্ছে। যার কারণে ন্যাপেট পেয়াজ রপ্তানি বন্ধ করেছে। এছাড়া ভারতে পেয়াজের উৎপাদন কম।

মূলত উৎপাদন কম ও কম মূল্যে রপ্তানি করতে না পারায় ভারত পেয়াজ রপ্তানি বন্ধ করে দিয়েছে।’ সাতক্ষীরা ভোমরা কাস্টমস সহকারী কমিশনারের কার্যালয় থেকে প্রাপ্ত তথ্যে জানা গেছে, ভোমরা স্থলবন্দর দিয়ে গত রোববার (৬ সেপ্টেম্বর) পেঁয়াজ আমদানি হয়েছে ৮৫ ট্রাকে ১ হাজার ৮৭০ মেট্রিক টন পেয়াজ, ৭ সেপ্টেম্বর সোমবার ৭৮ ট্রাকে পেয়াজ আমদানি হয়েছে ১ হাজার ৮৯৭ মেট্রিক টন, ৮ সেপ্টেম্বর ৭৪ ট্রাকে ১ হাজার ৭৩০ মেট্রিক টন, ৯ সেপ্টেম্বর ৮৮ ট্রাকে ২ হাজার ১৪৩ মেট্রিক টন, ১০ সেপ্টেম্বর ৫৪ ট্রাকে ১ হাজার ২৬২ মেট্রিক টন, ১২ সেপ্টেম্বর ৮২ ট্রাকে ১ হাজার ৭৯৮ মেট্রিক টন, ১৩ সেপ্টেম্বর ৭৪ ট্রাকে ১ হাজার ৭৩৬ মেট্রিক টন পেয়াজ।

এদিকে, আজ ভারত থেকে কোনো পেঁয়াজ আমদানি হয়নি। সকাল থেকে কোনো পেঁয়াজের ট্রাক ভোমরা বন্দর দিয়ে ভারত থেকে বাংলাদেশে প্রবেশ করেনি। ভোমরা বন্দরের রাজস্ব কর্মকর্তা মহসিন হোসেন বলেন, ‘সকাল থেকে বেলা ৪টা পর্যন্ত এখনো কোনো পেঁয়াজের ট্রাক বন্দর দিয়ে প্রবেশ করেনি। তাছাড়া পেয়াজ আমদানি বন্ধের কোনো কারণও জানা যায়নি।’

এদিকে এই খবরে সাতক্ষীরার স্থানীয় বাজারে পেয়াজের মূল্য কেজি প্রতি ১৫ টাকা বৃদ্ধি পেয়েছে।

সূত্র: আমাদের সময়।