আগামী বছরের শুরুতে ফের চালু হতে পারে ওমরাহ

আন্তর্জাতিক ফ্লাইট চলাচলের ওপর জারিকৃত নিষে’ধাজ্ঞা আংশিকভাবে তুলে নিচ্ছে সৌদি সরকার। এর ফলে আগামী বছরের শুরু থেকে ওমরাহ পালন পুনরায় চালু হতে পারে। মহামা’রি করোনাভাই’রাসের বিস্তার ঠেকাতে প্রায় ৬ মাস সৌদি আরবে ভ্রমণ নিষে’ধাজ্ঞা জারি ছিল। আগামী ১৫ সেপ্টেম্বর থেকে তা আংশিকভাবে তুলে নেয়া হচ্ছে। তবে সব ধরনের নিষে’ধাজ্ঞা কবে তুলে নেয়া হবে সে বিষয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলছে, আকাশপথ, স্থল এবং সমুদ্রপথে সব ধরনের নিষে’ধাজ্ঞা আগামী বছরের জানুয়ারি থেকেই তুলে নেয়া হবে।

দীর্ঘদিন ধরেই সৌদিতে ওমরাহ স্থগিত রাখা হয়েছে। আস্তে আস্তে এই প্রক্রিয়া স্বাভাবিক হতে শুরু করবে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ। এছাড়া বিভিন্ন দেশে থাকা সৌদি নাগরিকরাও জানুয়ারি থেকে স্বাভাবিকভাবেই সৌদিতে যাওয়া-আসা করতে পারবেন। এক বিবৃতিতে দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, আগামী ১৫ সেপ্টেম্বর থেকে আংশিকভাবে আন্তর্জাতিক ফ্লাইটের ওপর থেকে নিষে’ধাজ্ঞা তুলে নেয়া হচ্ছে। এদিকে, কর্তৃপক্ষের এমন ঘোষণায় বিদেশে লেখাপড়া করছেন এমন সৌদি শিক্ষার্থীদের মধ্যেও কিছুটা স্বস্তি মিলেছে।

কারণ স্কলারশীপ পাওয়া শিক্ষার্থী, মেডিক্যাল ফিলোশিপ প্রোগ্রামের প্রশিক্ষণার্থীরা অন্যান্য দেশেও ভ্রমণ করতে পারবেন। বিশেষ কিছু ক্ষেত্রে সৌদির বাইরে থাকা লোকজনও তাদের পরিবারের লোকজনের সঙ্গে সাক্ষাত করার অনুমতি পাবেন। আগামী ১৫ সেপ্টেম্বর থেকেই আরব উপসাগরীয় অঞ্চলের দেশগুলোর নাগরিক এবং সৌদির বাসিন্দা নন কিন্তু ইকামার অনুমতি আছে এমন নাগরিক এবং ভ্রমণ ভিসায় সৌদিতে প্রবেশ করা যাবে।

তবে করোনামুক্ত বা কোভিড-১৯ নেগেটিভ সার্টিফিকেট ছাড়া কেউ সৌদিতে প্রবেশের অনুমতি পাবেন না বলে জানিয়েছে সৌদির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। এমনকি এই নেগেটিভ সার্টিফিকেট দেশটিতে প্রবেশের ৪৮ ঘণ্টা আগে ইস্যুকৃত হতে হবে।

এছাড়া ব্যতিক্রমী কিছু ক্ষেত্রে যেমন সরকারি, সেনাবাহিনী এবং বিদেশি দূতাবাসের কর্মী এবং চিকিৎসাসেবা গ্রহণের প্রয়োজন এমন লোকজনও মঙ্গলবার থেকে সৌদিতে প্রবেশ এবং সৌদি থেকে অন্য দেশে যাতায়াত করতে পারবেন।-ডেইলি বাংলাদেশ