রাজস্থানের জার্সিতে এবার স্যানিটারি প্যাডের লোগো

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী নিজের স্বাধীনতা দিবসের ভাষণে স্যানিটারি প্যাড নিয়ে সচেতনতা বৃদ্ধির কথা বলে সর্বস্তরে প্রশংসিত হন। এদিকে, ১৯ সেপ্টেম্বর থেকেই শুরু হয়ে যাচ্ছে আইপিএল। এত সামাজিক সচেতনতা সত্ত্বেও স্যানিটারি প্যাড নিয়ে ছুতমার্গ রয়েই গিয়েছে। সেই ট্যাবু ভাঙতেই এবার উদ্যোগী হল রাজস্থান রয়্যালস। আসন্ন আইপিএলে রাজস্থান রয়্যালস এবার স্যানিটারি ন্যাপকিনের একটি ব্র্যান্ডের লোগো জার্সিতে লাগিয়ে খেলতে নামবে।

এই প্রথমবার কোনো দল স্যানিটারি প্যাড নির্মাতা একটি কোম্পানির সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধল। রাজস্থান রয়্যালসের সঙ্গে চুক্তি হয়েছে স্যানিটারি প্যাড প্রস্তুত কারক সংস্থা নাইন-এর। দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ার অধিকাংশ যুবতীদের কাছেই ঋতুস্রাব লজ্জার বিষয়। সামাজিক ভাবে অস্বস্তিরও জন্ম দেয় শারীরবৃত্তীয় এই প্রক্রিয়া। ঋতুমতী মহিলাদের একাধিক সমস্যারও মুখোমুখি হতে হয়, যেমন- মন্দিরে যাওয়া বা পুজো অর্চনার কাজে বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়। নাইন-এর পরিসংখ্যান বলছে ভারতে ৩৫০ মিলিয়ন ঋতুমতী যুবতীদের মধ্যে মাত্র ৮ মিলিয়ন মেয়ে স্যানিটারি প্যাড ব্যবহার করেন।

রাজস্থান রয়্যালসের সিইও জেক লুশ ম্যাক্রম রয়টার্সকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে বলেন, “ভারত সহ বিশ্বের বহু দেশে এটা একটা সামাজিক ট্যাবুর বিষয়। ভারতে এই নিয়ে আরো সচেতনতার প্রয়োজন রয়েছে। শুধু পুরুষদের নয়, মহিলাদেরও। এই বিষয় কোনোভাবেই উপেক্ষা করা যাবে না।” প্রসঙ্গত, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী নিজের স্বাধীনতা দিবসের ভাষণে স্যানিটারি প্যাড নিয়ে সচেতনতা বৃদ্ধির কথা বলে সর্বস্তরে প্রশংসিত হন।

নাইন-এর প্রতিষ্ঠাতা অমর তুলসিয়ান জানান, এই স্পন্সরশিপের প্রধান উদ্দেশ্যই হল, সবার মধ্যে স্যানিটারি প্যাড নিয়ে পুরুষদের মধ্যে সচেতনতা বাড়ানো, যারা পরিবারের সমস্ত কিছুর জন্য খরচ করেন কেবলমাত্র স্যানিটারি প্যাড ছাড়া। “পরিবারের বাবা, ভাই অথবা ছেলে সবার জানা উচিত বাড়ির মহিলারা স্যানিটারি প্যাড ব্যবহার করছেন কিনা!” বলেছেন তিনি।

১৯ সেপ্টেম্বর থেকেই শুরু হয়ে যাচ্ছে আইপিএল। প্রথম ম্যাচেই মুখোমুখি সিএসকে এবং মুম্বই ইন্ডিয়ান্স।-ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস