মেসির ডান পায়ের জাদু দেখল ফুটবল বিশ্ব

লিওনেল মেসি বাঁ পায়ের জাদুকর। ওই এক পায়ের কারুকাজ দেখিয়েই বিশ্বের অগণিত ফুটবল অনুরাগীর মন জয় করেছেন। অন্য পায়ের ব্যবহার তেমন একটা করেন না তিনি। তবে গতপরশু রাতে জিরোনার বিপক্ষে যে চোখ ধাঁধানো গোলটি করলেন বার্সেলোনা অধিনায়ক, সেই গোলটির উৎস তার ডান পা। ইয়োহান ক্রুইফ স্টেডিয়ামে প্রথমার্ধের শেষ মিনিটে আরও একবার ফুটবল দুনিয়াকে তাক লাগিয়ে দেন মেসি।

জিরোনার ডি-বক্সের বাঁ প্রান্তে বল পেয়ে আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ডের উদ্দেশ্যে বাড়ান ফিলিপ কৌতিনহো। মেসি তখন ডি-বক্সের বাইরে। ঝটকা দিয়ে ঘুরে পাশে থাকা প্রতিপক্ষের এক ডিফেন্ডারকে ছিটকে দেন ৩৩ বছর বয়সী তারকা। এরপর বাঁ পায়ের ছোঁয়ায় জায়গা করে নিয়ে ডান পায়ে নেন আচমকা শট। যেন দ্রুত গতির ‘গোলা’! গোলপোস্টের ভেতরের দিকে লেগে জালে প্রবেশ করে বল। জিরোনা গোলরক্ষকের ঠায় দাঁড়িয়ে থাকা ছাড়া আর কিছুই করার ছিল না।

অনেক টানাপোড়েন শেষে থেকে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়ার পর বার্সার জার্সিতে ও নতুন কোচ রোনাল্ড কোমানের অধীনে এটাই মেসির প্রথম গোল। হোক না প্রস্তুতি ম্যাচে! দ্বিতীয়ার্ধের ষষ্ঠ মিনিটে আরও একবার জালের ঠিকানা খুঁজে নেন রেকর্ড ছয়বারের ব্যালন ডি’অর জয়ী তারকা। দ্বিতীয় গোলটি আসে তার চিরাচরিত ঢঙয়ে, বাঁ পায়ে।

মৌসুম পূর্ববর্তী প্রস্তুতির প্রথম ম্যাচে জিমনাস্টিক দে তারাগোনার বিপক্ষে গোলের দেখা পাননি মেসি। চার দিন পর জিরোনার বিপক্ষে নিজে জোড়া গোল করার পাশাপাশি দলের প্রথম গোলটিতেও অবদান রাখেন তিনি। ম্যাচের ২১তম মিনিটে তার রক্ষণচেরা পাস বুঝে নিয়ে গোলমুখে ফেলেছিলেন সম্প্রতি বার্সায় যোগ দেওয়া ত্রিনকাও। বাকি কাজটা সহজেই সারেন অরক্ষিত ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড কৌতিনহো। জিরোনার বিপক্ষে ম্যাচটা শেষ পর্যন্ত ৩-১ ব্যবধানে জিতেছে কাতালানরা।

আগামী ২৭ সেপ্টেম্বর লা লিগায় প্রথম ম্যাচ খেলবে বার্সা। ঘরের মাঠ ক্যাম্প ন্যুতে ভিয়ারিয়ালের মুখোমুখি হবে তারা। এই ম্যাচ দিয়ে দলটির কোচ হিসেবে প্রতিযোগিতাম‚লক যাত্রা শুরু করবেন কোমান।