দীর্ঘদিন পর দলীয় অনুশীলন করে দারুণ খুশি মাহমুদুল্লাহ

অবশেষে আজ দুপুরের দলীয় অনুশীলন করেছে বাংলাদেশ দলের ক্রিকেটাররা। মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে এইদিন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় দলের অনেক গুরুত্বপূর্ণ সদস্য। করোনা ভাইরাসের কারণে মার্চের পর বন্ধ রয়েছে সকল ধরনের ক্রিকেট ম্যাচ। আগামী মাসে শ্রীলংকার বিপক্ষে তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজ কে সামনে রেখে তাই মাঠে নেমেছে টাইগাররা।

দলীয় অনুশীলনে ফিরতে পেরে দারুণ খুশি বাংলাদেশ টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। আজ অনুশীলনের ফাঁকে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়ক বলেন, ‘আলহামদুলিল্লাহ, অনেকদিন পর আমরা আজ (রোববার) মিরপুরে দলগত অনুশীলন শুরু করলাম।

খুব ভালো লাগছে। লকডাউনের সময়টা খুবই কঠিন ছিল, কারণ দল থেকে দূরে এবং অনুশীলন থেকেও সরে থাকতে হয়েছে। তবে যতটুকু পেরেছি বাসায় রানিং আর জিমের কাজগুলো করেছি। কিন্তু স্কিলের কাজগুলো করতে পারছিলাম না। এখন এগুলো শুরু করেছি অনেকদিন হলো।’

তবে লকডাউন অনেক কাজে দিয়েছে বলে জানিয়েছেন মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। ‘লকডাউনের সময়ে একটা ব্যাপার ভালো হয়েছে- চেষ্টা করেছি আমার ফিটনেসটা যেন আরও ভালো করা যায়। ট্রেডমিলে অনেক সময় দিয়েছি। ফিজিও ও ট্রেনারের গাইডলাইন ছিল, ওগুলো নিয়ে কাজ করেছি। বেশ ভালো ফল পেয়েছি।’

দলগত অনুশীলনে সবার চাঙ্গা মনোভাব দেখতে পেয়েছেন মাহমুদউল্লাহ। দিনটা সম্পর্কে তিনি বলেছেন, ‘আমরা ব্যক্তিগত অনুশীলন করেছি, ব্যাটিং করছি ৪-৫ সপ্তাহ হলো। ব্যাটিং কোচের সঙ্গে কথা বলে নির্দেশনা অনুসারে কী কী কাজ করা দরকার ছিল, বোলিং মেশিনে তা করেছি।

এখন সতীর্থদের সঙ্গে কাজ করছি ঐক্যবদ্ধ হয়ে। সতীর্থরাও বেশ উৎফুল্ল, আর আমিও। কারণ দিন শেষে এটা একটা দলগত খেলা, দলের সবার সঙ্গে মিলেমিশে অনুশীলনটা উপভোগ করলে তা আরও বেশি কার্যকর হয় নিজের ও সতীর্থদের জন্য।’