ক্রিকেটের তিন ফরম্যাটে প্রতিনিধিত্ব করতে চাই : মুস্তাফিজ

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের তিন ফরম্যাটে টাইগারদের প্রতিনিধিত্ব করতে চান বাংলাদেশের বাঁহাতি পেসার মুস্তাফিজুর রহমান। ২৪ অক্টোবর থেকে শুরু হতে যাওয়া শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজের আগে প্রশিক্ষণে এখন ব্যস্ত সময় পার করছেন তিনি।

মুস্তাফিজের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেকের পর গত পাঁচ বছরে বাংলাদেশ ২৯ টি টেস্ট খেলেছে। এর মধ্যে মোস্তাফিজুর ১৩টি ম্যাচে বাংলাদেশ দলের হয়ে অংশ নেন। দলের নীতিনির্ধারকরা তাকে সর্বদা সীমিত ওভারের ক্রিকেটে অস্ত্র হিসেবে দেখেছেন, যেখানে তার উপস্থিতি অনেক বেশি দেখা গেছে।

এই বছরের শুরুর দিকে বাংলাদেশের প্রধান কোচ রাসেল ডোমিঙ্গোও বলেছিলেন যে দীর্ঘ পরিসরের ফরম্যাটে নিয়মিতভাবে মুস্তাফিজকে খেলানোর কোনো পরিকল্পনা তার নেই, তিনি বরং সীমিত পরিসরে পেস বোলিং বিভাগে মুস্তাফিজ প্রধান অস্ত্র হবেন বলে জোর দিয়েছিলেন। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) বাছাই কমিটি অবশ্য মুস্তাফিজুরকে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজের জন্য দলে অন্তর্ভুক্ত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

সোমবার বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের দ্বিতীয় দিনের দক্ষতা প্রশিক্ষণ শেষে মুস্তাফিজ গণমাধ্যমকে বলেন, আমি ক্রিকেটের প্রতিটি ফরম্যাটে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করতে চাই। বর্তমানে, প্রতিটি ফরম্যাটে যাতে ভালো করা যায় আমি এমন বিষয়গুলোতে কাজ করছি যা আমাকে এমন একটি বোলার হতে সহায়তা করবে। আমি বল সুইং করার কৌশল রপ্ত করার চেষ্টা করছি। আমাদের পেস-বোলিং কোচ (ওটিস গিবসন) আমাকে শিখিয়েছেন যে আমি কীভাবে বলকে আরও ভালোভাবে সুইং করতে পারি। তিনি আমাকে কয়েকটি গ্রিপ দেখিয়েছেন যা খুব সহায়ক। আমি এটি শিখতে চেষ্টা করছি। আমি জানি সময় লাগবে। আমি বিশ্বাস করি যদি আমি ধারাবাহিকভাবে কঠোর পরিশ্রম করি তবে আমি এটি করতে পারব বলেন তিনি।

২০১৫ সালে ভারতের বিপক্ষে অভিষেকের সিরিজে মুস্তাফিজুর আলো ছড়িয়েছিলেন। টাইগারদের হয়ে তার প্রথম দুটি খেলায় তিনি দুটি ম্যাচে পাঁচটি করে উইকেট শিকার করেন। ভারতের বিপক্ষে প্রথম ওয়ানডে সিরিজ জয়ের জন্য তিনি মুখ্য ভূমিকা পালন করেছিলেন। তারপর থেকে মুস্তাফিজুর নিজেকে বাংলাদেশ সীমিত ওভার দলের অবিচ্ছেদ্য অংশ হিসাবে প্রতিষ্ঠিত করেছেন। তবে ২০১৫ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ক্রিকেটের দীর্ঘ পরিসরে অভিষেকে চার উইকেট শিকার করেও তিনি তার পারফরম্যান্স ধরে রাখতে ব্যর্থ হন।

সূত্র: ইউএনবি