‘সেনাবাহিনীকে রাজনীতিতে টানবেন না’ : সাফ জানিয়ে দিলেন পাকিস্তানের সেনাপ্রধান

সাফ কথা জানিয়ে দিলেন পাকিস্তানের সেনাপ্রধান জেনারেল কমর জাভেদ বাজওয়া। পার্লামেন্টের নেতাদের তিনি বলে দিয়েছেন, রাজনৈতিক দলগুলোর রে’ষারে’ষিতে সেনাবা’হি’নীকে টে’নে নেয়া উচিত নয়। দেশের কোন রকম রাজনৈতিক প্র’ক্রি’য়ায় প্রত্য’ক্ষ বা পরো’ক্ষভাবে জ’ড়িত ন’য় সেনাবা’হি’নী। তবে প্রয়োজন হলে বেসা’ম’রিক সরকারের পাশে দাঁড়াবে তারা।

গত সপ্তাহে পার্লামেন্টের নেতাদের সঙ্গে তার এক বৈঠকে এমন আলোচনা হয়েছে। সিনিয়র এক সেনা কর্মকর্তাকে উ’দ্ধৃ’ত করে এ খবর দিয়েছে অনলাইন এক্সপ্রেস ট্রিবিউন। এতে বলা হয়, অন্য বিভিন্ন ই’স্যুর সঙ্গে গিলগিট-বাল্টিস্তানের প্রশা’সনিক বিষয় ও ন্যাশনাল একা’উন্টেব’লিটি ব্যুরোর (এনএবি) ভূমিকা নিয়ে সেনাপ্রধান কমর জাভেদ বাজওয়া এবং ইন্টার-সা’র্ভিসেস ইন্টে’লিজে’ন্সের মহাপরিচালক লেফটেন্যান্ট জেনারেল ফায়েজ হামিদের সঙ্গে সাক্ষাতে মিলিত হন পার্লামেন্টারি নেতারা।

সূত্রের মতে, এতে উপস্থিত ছিলেন পিএমএলএনের শাহবাজ শরীফ, খাজা আসিফ ও আহসান ইকবাল। অন্যদিকে পাকিস্তান পিপলস পার্টির নেতাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিলাওয়াল ভুট্টো জারদারি, শেরি রেহমান প্রমুখ। সূত্র বলেছেন, গিলগিট-বাল্টিস্তানকে নতুন প্রদেশ ঘোষণার জন্য বৈঠকে একমত হয়েছেন সবাই। কেন্দ্রীয় রেলমন্ত্রী শেখ রশিদ আহমেদ সোমবার একটি বেসরকারি নিউজ চ্যানেলকে দেয়া সাক্ষাতকারে এই বৈঠকের কথা নি’শ্চি’ত করেছেন। বলেছেন, গত সপ্তাহে অনুষ্ঠিত হয়েছে ওই বৈঠক।

মন্ত্রী বলেন, বিরো’ধী দলীয় এসব প্রতিনিধিকে সেনাপ্রধান এটা পরিষ্কার করে বলেছেন যে, সেনাবা’হি’নীকে রাজনীতিতে টেনে আনা উচিত হবে না। এনএবি চেয়ারম্যান বা প্রধান নির্বাচন কমিশনার নিয়োগের বিষয়ে সেনাবা’হি’নীর কিছুই করার নেই। এটা পুরোপুরি রাজনৈতিক বিষয়। রোববার সর্বদলীয় কনফারেন্সে সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফ অ’গ্নিঝ’রা বক্তব্য রেখেছেন।

এ বিষয়ে রশিদ বলেন, দেশের প্রতিষ্ঠানগুলোকে চ্যা’লে’ঞ্জ জানিয়ে নিজের রাজনৈতিক অধ্যায় ব’ন্ধ করে দিয়েছেন নওয়াজ শরীফ। তার বক্তব্য শাহবাজ শরীফের মিশনকে ডু’বিয়ে দেবে। পিএমএএলএনের ভিতরেই ফা’টল দেখা দেবে।