রাহুলের প্রশংসা করতে গিয়ে কোহেলিকে অপমানিত করে ফেললেন রোহিত!

রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের বিরুদ্ধে আইপিএল এর ত্রয়োদশ সংস্করণের প্রথম শতরান হাঁকেন কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের অধিনায়ক কে এল রাহুল। মাত্র ৬৯ বলে ১৩২ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবকে ২০৬ রানে নিয়ে যান রাহুল।

কিন্তু সেই ম্যাচের অন্যতম হাইলাইট বলা চলে, রাহুলের দুটি ক্যাচ মিস করেছিলেন রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর অধিনায়ক বিরাট কোহলি। এছাড়াও ব্যাটেও একেবারে ব্যর্থ হন বিশ্বের অন্যতম সেরা এই ব্যাটসম্যান। কিন্তু এরই মাঝে নাম উঠে গেল মুম্বই ইন্ডিয়ান্স অধিনায়ক রোহিত শর্মার। কিন্তু কেন?

ভারতের উইকেটকিপার ব্যাটসম্যানের কে এল রাহুলের এই শতরানের প্রশংসাবাণী আসে বিভিন্ন ক্ষেত্র থেকে। আর রাহুলের এমন দুর্ধর্ষ ইনিংসের প্রশংসাও করেন খোদ হিটম্যান। টুইটারে তিনি লিখেছেন, “দারুণ কিছু শট মেরেছেন কে এল রাহুল। দুর্দান্ত শতরান।

কিন্তু বিতর্কটি লাগে অন্য জায়গায়, রোহিত যখন এই টুইটটি করেন, তখন ইতিমধ্যেই রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর ব্যাটিং করা শুরু করে দিয়েছে। এমনকি, ভারতীয় সময় রাত ৯.৪৭ এ যখন তিনি টুইট করেছেন, তার কিছুক্ষণ আগেই মাত্র এক রান করেই আউট হয়েছেন বিরাট কোহলি। রোহিতের এমন নিখুঁত টাইমিংয়ের জেরে সোশ্যাল মিডিয়ায় চলল ট্রোলের বন্যা।

ভারতীয় দলের অধিনায়ক বিরাট কোহলি ও সহ অধিনায়ক রোহিত শর্মার মধ্যে তেমন কোনও লড়াই না চললেও ক্রিকেটপ্রেমীরা একটি ঠান্ডা লড়াই তৈরি করে রেখেছেন দুই দুর্ধর্ষ ব্যাটসম্যানের মধ্যে। আর এবার তারই ফায়দা লুটে একের পর এক ট্রোল শুরু করে দিয়েছিল নেটিজেনরা।

রোহিত শর্মার ব্যাটিংয়ের টাইমিং নিয়ে কোনও কথা হবে না। যেভাবে টাইমিংয়ের সাথে তিনি বল মারেন তাতে ক্রিকেট বিশেষজ্ঞরা অভিভূত হন। কিন্তু এদিন রোহিতের এই টুইটের টাইমিং নিয়ে এবার সোশ্যাল মিডিয়ায় রোহিতের প্রশংসা করলেন নেটিজেনরা।

এছাড়া কেউ কেউ দাবি করেছেন যে রোহিত শর্মা ইচ্ছা করে দেরি করেছেন টুইট করতে, যাতে তিনি বিরাট কোহলিকে টুইট করতে পারেন। বলা বাহুল্য, রোহিত শর্মা যখন কে এল রাহুলের শতরানের বিষয়ে টুইট করেছেন, তখন আধঘন্টা হয়ে গিয়েছে রাহুলের শতরান করা। ফলে সময়জ্ঞান নিয়ে প্রশ্ন উঠেই গিয়েছে।