ধর্ষ’ণ দূরের কথা, নারীর প্রতি আড়চোখে তাকাবে এমন কর্মী ছাত্রলীগে নেই : নাহিয়ান জয়

ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় বলেছেন, ‘ধ’র্ষণ তো দূ’রের কথা, কেউ নারী সমাজের প্রতি বিন্দুমাত্র আড়চোখে তাকানোর সা’হস করে, এমন কোনো কর্মী বাংলাদেশ ছাত্রলীগে নেই। সিলেটের এমসি কলেজের ধ’র্ষণের ঘটনায় সবার আগে কে আ’ন্দো’লন করেছে? সবার আগে ছাত্রলীগ সেখানে দু’র্বার আ’ন্দো’লন গড়ে তুলেছে। যতক্ষণ পর্যন্ত ওই ধর্ষ’কদের বিচার না হবে, তারা কিন্তু আ’ন্দো’লন সংগ্রাম চালিয়ে যাচ্ছে’।

রবিবার বেলা ১১টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে অনুষ্ঠিত এক বি’ক্ষো’ভ সমা’বেশ থেকে এসব বলেন ছাত্রলীগ সভাপতি। ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক নুরের বিরু’দ্ধে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থীসহ সারা দেশে ধ’র্ষণের ঘটনায় জ’ড়িতদের আই’নের আওতায় এনে দৃষ্টা’ন্তমূলক শা’স্তির দাবিতে এ সমা’বেশ করে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ। ধ’র্ষণের ঘটনায় জড়ি’তদের বিশেষ ট্রাই’ব্যুনাল গঠন করে ত্রিশ দিনের মধ্যে বিচারের আওতায় আনার দাবি জানায় ছাত্রলীগ।

সমা’বেশে জয় বলেন, নুর ডাকসুর সাবেক সব ভিপির মর্যাদা’হানি করেছে। সে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় একজন ছাত্রীকে ‌‘পতি’তা’ ডেকেছে। এই ধর্ষ’কের কোনো দল নেই। তারা ধর্ষ’ণও করবে, আবার আ’ন্দো’লনও করবে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে এমন ইতিহাস নেই। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের সঙ্গে নাটক করেছে সে। গু’জবের মাধ্যমে ভিপি পদ বাগিয়ে নেয়া নুরের মুখো’শ উ’ন্মোচন হয়েছে’।

সিলেটে এমসি কলেজ ক্যাম্পাসে স্বামীকে বেঁধে রেখে স্ত্রীকে ধ’র্ষণের ঘটনায় জ’ড়িতদের কেউ ছাত্রলীগের নয় বলে মন্তব্য করেছেন ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য। তিনি বলেন, ‘সিলেটের এমসি কলেজে যারা ন্যা’ক্কারজনক ঘটনা ঘটিয়েছে, তারা কেউ ছাত্রলীগ হতে পারে না। আপনারা জানেন, এই ঘটনায় সিলেটের ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা দু’র্বার আ’ন্দো’লন গড়ে তুলেছে।

যারা ধ’র্ষণ করেছে, তারা যদি ছাত্রলীগ হয় তবে যারা আ’ন্দো’লন করেছে, তারা কারা’?বিক্ষো’ভ সমা’বেশে অন্যদের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন ছাত্রলীগের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি সনজিত চন্দ্র দাস, সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসাইন প্রমুখ।