এমসি কলেজে গণধ’র্ষণ: দাড়ি-চুল ফেলেও শেষ রক্ষা হল না, আ’টক তারেক

সিলেটের এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে স্বামীকে আ’টকে গৃহবধূকে ধর্ষ’ণের ঘটনায় এজাহারভুক্ত ২নং আসা’মি তারেকুল ইসলাম তারেককে (২৮) গ্রেফ’তার করেছে র‌্যাব।মঙ্গলবার (২৯ সেপ্টেম্বর) সুনামগঞ্জের দিরাইয়ের জগদল এলাকা থেকে তাকে গ্রে’ফতার করা হয়। বিষয়টি গণমাধ্যমে পাঠানো এক বার্তায় র‌্যাব নিশ্চিত করেছে। তারেক দাড়ি ও চুল ফেলে ছদ্দবেশ ধারণ করে ছিল।

ইতোমধ্যে মামলার এজাহারনামীয় আসা’মি সাইফুর, রনি, অর্জুন ও রবিউলকে গ্রেফ’তার করা হয়েছে। এছাড়া রনির দেওয়া ত’থ্যের ভিত্তিতে ঘটনায় জ’ড়িত রাজন ও আইনুদ্দিনকেও গ্রে’ফতার করা হয়েছে। উল্লেখ্য, গত ২৫ সেপ্টেম্বর সিলেটের দক্ষিণ সুরমার এক নবদ’ম্পতি এমসি কলেজে বেড়াতে যান। বিকেলে এমসি কলেজের ছাত্রলীগ নামধারী কয়েকজন নেতাকর্মী স্বামী-স্ত্রীকে ধরে ছাত্রাবাসে নিয়ে প্রথমে মা’রধর করে। পরে স্বামীকে আ’টকে রেখে স্ত্রীকে দলব’দ্ধ হয়ে ধ’র্ষণ করে।

এ ঘটনায় শনিবার (২৬ সেপ্টেম্বর) ছয়জনের নাম উল্লেখ ও অজ্ঞা’ত আরও কয়েকজনকে আসা’মি করে নগরের শাহপরান থা’নায় মা’মলা করেন নির্যা’তিতার স্বামী। ঘটনার পর অভি’যানে ছাত্রলীগ কর্মী সাইফুর রহমানের কক্ষ থেকে অ’স্ত্র উ’দ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় আরে’কটি মা’মলা দায়ের করেন শাহপরান (র.) থা’না পুলিশের একজন উপপরিদর্শক (এসআই)।

সূত্র: সময় নিউজ।