৪ বছর নয়, ৩ বছরেই ইতালিয়ান পাসপোর্ট!

বিশ্বের তৃতীয় শক্তিশালী পাসপোর্ট হলো ইতালিয়ান। যার মাধ্যমে অতি সহজেই বিশ্বের প্রায় ১৮৭টি দেশ ভ্র’মণ করতে কোন ভিসার প্রয়োজন হয় না। এই পাসপোর্ট পেতে কে না চায়? কিন্তু এই পাসপোর্ট পেতে হলে অপেক্ষা করতে হয় অনেক দিন। আবেদনকারীকে আই’নের মাধ্যমে চলতে হয় এবং শেষ তিন বছরের আয় কে ডি’ক্লেয়ার করতে হয় এবং কোন ফৌজদারি দ’ণ্ডে দ’ণ্ডিত আবেদনকারীকে ইতালির পাসপোর্ট দেয়া হয় না।

ইতালিয়ান পাসপোর্ট পেতে হলে একজন ব্যক্তিকে ইতালিতে টানা দশ বছর রেসিডেন্ট পারমিট নিয়ে বসবাস করতে হয় এবং ১০ বছর পূর্ণ হওয়ার পর জন্ম গ্রহণকারী দেশের ত’থ্য সহকারে আবেদন করতে হয় ইতালিয়ান স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে। ইতালিয়ান নাগরি’কত্বের জন্য আবেদন পত্রটি দাখিল করার পর অপেক্ষা করতে হতো দুই বছর। দুই বছরের মধ্যে আবেদনপত্রটি মঞ্জুর কিংবা খা’রিজ করা হতো। এভাবেই চলছিল ইটালিয়ান নাগরি’কত্ব আ’ইন প্রায় দেড় যুগ ধরে।

এখন থেকে প্রায় দুই বছর আগে সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অভিবাসন বিরো’ধী মাতেয়ো সালভেনি এই আই’নটিকে দুই বছরের পরিবর্তে চার বছরে বৃদ্ধি করেন। এর প্রতি’বাদ করেন বিভিন্ন অভিবাসন সংগঠন এবং অনেক মান’বাধিকার সংগঠন। তখনকার সময়ে সরকার এতে কোন কর্ণপাত করেনি।

এক বছর আগে আস্থাভোটে এই ডানপ’ন্থি সরকার ক্ষ’মতা হারান এবং ক্ষমতা হারান সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মাতেয় সালভেনি। তখন থেকেই স্বর উঠছিল নাগরি’কত্ব আ’ইন চার বছরের স্থলে দুই বছরে ফিরে আসছে। সরকারি অধ্যাদেশটি উপর পরীক্ষা-নিরীক্ষা চালান এবং দীর্ঘ পরীক্ষার পর সিদ্ধান্তে পৌঁছেছেন যে নাগরি’কত্ব আই’ন ৪ বছরের স্থলে ৩ বছরের ফিরিয়ে আনবেন।

বিভিন্ন অভিবাসন সংগঠনগুলোর দাবি ছিল এই আই’নটি দুই বছরের ফিরিয়ে আনার এবং এতে সাড়া দিয়েছিলেন মানবাধিকার সংগঠনগুলো। বর্তমান সরকার এ আ’ইনটিকে মাঝামাঝি অবস্থানে ২ অথবা চার বছরের মাঝখানে তিন বছরে এ আইনটি চূড়ান্ত করার প্রক্রিয়ায় কাজ করছেন। সবকিছু ঠিক থাকলে অচিরেই এ অধ্যাদেশটি আই’নে পরিবর্তন হবে। তখন থেকে ইটালিয়ান পাসপোর্ট পেতে চার বছরের স্থলে তিন বছরের সময় গণনা করা হবে।

সূত্র: সময় নিউজ।