‘কী সাহস, আমার শরীর নিয়ে প্রশ্ন করে!’

সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃ’ত্যুতে মাদ’ক-কা’ণ্ডে দীপিকা পাড়ুকোনের পাশাপাশি উঠে এসেছে তার ম্যানেজার কারিশমা প্রকাশের নামও। কারিশমা কাজ করেন ‘কওয়ান ট্যালেন্ট ম্যানেজমেন্ট এজেন্সি’-তে। আর ওই সংস্থার সহ-প্রতিষ্ঠাতা অনির্বাণ দাসের বিরু’দ্ধে এবার গুরু’তর অভি’যোগ আনলেন অভিনে’ত্রী শার্লিন চোপড়া। খবর- আনন্দবাজার পত্রিকা।

টুইটারে একটি ভি’ডিও শেয়ার করে শার্লিন লিখেছেন, এই ব্যক্তিই কয়েক বছর আগে আমায় জিজ্ঞাসা করেছিল, আমার স্ত’ন আসল না নকল? কী সাহস অনি’র্বাণের! প্রসঙ্গত, অনি’র্বাণের বিরু’দ্ধে যৌ’ন নিপী’ড়নের অভি’যোগ নতুন নয়। ২০১৮ সালে #মিটু আ’ন্দো’লন নিয়ে যখন বলিউড উত্তাল, ঠিক সেই সময়েই বেশ কয়েক জন অভিনেত্রী অনি’র্বাণের বিরু’দ্ধে শ্লী’ল’তাহানির অভি’যোগ আনেন। যার ফলে কওয়ান থেকে বহি’ষ্কার করা হয় অনি’র্বাণকে।

কয়েকদিন আগে কঙ্গনা রানৌতও লেখেন, অনির্বাণ এর আগেও অনেক নারীকে ধ’র্ষণ করেছে। অনেক দিন আগে একটি মেয়ে তার মাকে নিয়ে অনির্বাণের সঙ্গে দেখা করতে যায়। বাইরে মা’কে বসিয়ে রেখে মেয়েটিকে ধর্ষ’ণ করে অনির্বাণ। মা পুলিশে অভি’যোগও জানিয়েছিলেন। মি’ডিয়া তা কভারও করেছিল। কিন্তু আচমকাই সব চুপ হয়ে যায়।

সেই সব প্রসঙ্গ টেনে এনেই শার্লিন তার একটি পুরনো সাক্ষাৎকারের ভি’ডিও শেয়ার করে লিখেছেন, গত বছরই অনির্বাণ নামক ওই ব্যক্তি সম্পর্কে মুখ খুলেছিলাম আমি। ল’জ্জা করে না? ছিঃ! কত বড় সাহস, আমায় জিজ্ঞাসা করছে, আমার স্ত’ন আসল না নকল। শুধু তা-ই নয়, আমায় বার বার ছোঁয়ার চেষ্টাও করছিল ওই ব্যক্তি। নোং’রা লোক।

দীপিকার স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘টিএলএলআইএফ’-এর সঙ্গেও একটা সময় ঘনি’ষ্ঠ যোগাযোগ ছিল অনির্বাণের। মিটু কেসে নাম জড়ানোর পর ‘টিএলএলআইএফ’-ও বিবৃতি দিয়ে অনির্বাণের সঙ্গে যাবতীয় সম্পর্ক ছিন্ন করে।