‘বেআই’নিভাবে নির্মিত মন্দিরে ভগবান থাকতে চাইবেন না’

ভারতের কর্নাটকের হাইকো’র্ট একটি মাম’লার শুনানিতে বলেছেন, ভগবান বেআ’ইনি মন্দিরে থাকতে চাইবেন না। কর্নাটকের রাজধানী বেঙ্গালুরু থেকে ২৫০ কিমি দূরে চিক্কামাগালুরুতে বেআই’নিভাবে তৈরি শিব সুব্রণ্যস্বামী মন্দিরের বিষয়ে পদক্ষেপ করার জন্য সরকারকে বৃহস্পতিবার (০১ অক্টোবর) এক নির্দেশ দিয়েছেন আদা’লত।

মন্দিরটি বেআই’নিভাবে সরকারি জমিতে তৈরি করা হয়েছে এমন অভি’যোগে মন্দিরের এক ভক্ত ভেলু মুরুগান, জনস্বার্থ মা’মলা দায়ের করেছিলেন হাইকো’র্টে। তারই শুনানিতে কর্নাটকের হাইকো’র্টের মুখ্য বিচারপতি অভয় শ্রীনিবাস ওকার নেতৃত্বাধীন বেঞ্চ এমন কথা বলেন। রিপোর্ট অনুযায়ী, সরকারি জমিতে মন্দিরটি তৈরি করা হয়েছে এবং এই কারণে বন দফতরের অপ’রাধ আই’নে মা’মলাও দায়ের করা হয়েছে। এই রিপোর্ট দেখার পর সরকারকে যথাযথ পদক্ষেপ করার নির্দেশ দিয়েছেন আদা’লত।

নভেম্বরের প্রথম সপ্তাহের মধ্যে একটি কমপ্লায়েন্স রিপোর্ট পেশ করতে বলা হয়েছে। হাইকো’র্টের বেঞ্চ আরও বলেছে, ২০০৯ সালে বেআই’নি মন্দির নিয়ে সুপ্রিম কো’র্টের নির্দেশ মেনে মন্দিরটি সুরক্ষিত রাখা হবে কি না, তা ঠিক হবে সরকারকে। যদি সরকার সেটাই করবে বলে ঠিক করে, তবে মন্দিরটি তাদের মুজরাই দফতরে ( মন্দির বিষয়ক কর্নাটকের সরকারি অধিদপ্তর) ট্রান্সফার করতে হবে বলে জানিয়েছে আদা’লত।

পিটিশনের পক্ষে শুনানি করা আইনজীবী কল্যাণ এস বাসবরাজ আ’দালতে বলেন, মন্দির নির্মাণের জন্য সরকারের ২০ একর জঙ্গলের জমি দখল করে নেওয়া হয়েছে। মন্দিরটি সরাতে সরকারকে নির্দেশ দেওয়ার জন্য আ’দালতের কাছে দাবি জানান তিনি। ভেলু মুরুগানের অভি’যোগ, প্রতি বছর বেআইনি’ভাবে তৈরি মন্দির প্রাঙ্গণে ১৫০-২০০টি বিয়ে হচ্ছে, যার থেকে রাজস্ব আসছে প্রায় ৬৫ লাখ টাকা।

কিন্তু মন্দির পরিচালন কমিটি সেই অর্থ সরকারি কোষাগারে না দিয়ে নিজেদের পকেটে ভরছেন।

সূত্র: সময় নিউজ।